কোটালীপাড়ায় গলায় ফাঁস দিয়ে দুই গৃহবধূর আত্মহত্যা

জেমস বাড়ৈ, কোটালীপাড়া উপজেলা প্রতিনিধি:  গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় গলায় ফাঁস দিয়ে তিথী সরকার(১৮) ও অর্চনা রানী বাড়ৈ (২৭) নামে দুই গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছে। আজ বৃহস্পতিবার উপজেলা কলাবাড়ি ও শুয়া গ্রামে এ আত্মহত্যার ঘটনা ঘটে।

তিথী সরকার উপজেলার ডহরপাড়া গ্রামের বিপুল বালার স্ত্রী। অপর দিকে অর্চনা রানী বাড়ৈ শুয়া গ্রামের উজ্জ্বল বাড়ৈর স্ত্রী। ঘটনার বিবরণে জানা যায় উপজেলার শুয়াগ্রামের উজ্জ্বল বাড়ৈর স্ত্রী অর্চনা বাড়ৈ শাশুড়ীর সাথে ঝগড়া করে খুটির সাথে দড়ি দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। অপরদিকে জানা গেছে গত ৩ মাস আগে কলা বাড়ি গ্রামের দুঃখী রাম সরকারের মেয়ে তিথী সরকার ডহর পাড়া গ্রামের বাবু লাল বালার ছেলে বিপুল বালার সাথে পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয়।

ঘটনার দিন সকালেে বাবার বাড়ী থেকে স্বামীর বাড়ী যাওয়ার তিথীর মা পুস্প সরকারের তিথী কথার কাটাকাটি হয়। এ ঘটনার পর তিথী বাবার বাড়ীতে আডার সাথে ওড়না পেচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। কোটালীপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ লুৎফর রহমান ঘটনার দুটির সত্যতা স্বীকার করে বলেন, প্রাথমিক ভাবে দুটো ঘটনাই আত্মহত্যা বলেই মনে হয়। লাশ ময়না তদন্তের জন্য গোপালগঞ্জের সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।