কেন্দুয়া থানার সহযোগীতায় অসহায় প্রবাসীর টাকা উদ্ধার

জাহাঙ্গীর আলম, নেত্রকোণা প্রতিনিধিঃ নেত্রকোণার কেন্দুয়া উপজেলার সান্দিকোনা গ্রামের আইনুদ্দিনের ছেলে মালয়েশিয়া প্রবাসী জয়নুদ্দিন খুবই অসহায় ও গরীব পরিবারের সন্তান। পিতা আয়নুদ্দিন তার সহায় সম্বল দিয়ে একটু সুখের আশায় ছেলে জয়নুদ্দিনকে বিদেশ পাঠায়।

কোন রকম কেটে যাচ্ছিল প্রবাস জীবন। কিন্তুু করোনার এই ভয়াবহতা বিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দা সৃষ্টি হয়। প্রবাসীদের তেমন কোন বেতন নেই। তবুও প্রবাসে থেকে বাবা- মায়ের অভাবের কথা শুনে বিদেশ থেকে ৩০০০০ হাজার টাকা পাঠায় তার বাবার বিকাশ নাম্বারে।

কিন্তু বিকাশের একটি নাম্বার ভুল হওয়ায় কষ্টের টাকা চলে যায় অন্য ব্যক্তির বিকাশ নাম্বারে। সেই নাম্বারে অসহায় আয়নুদ্দিন ও তার প্রবাসী ছেলে অনেক আকুতি মিনতি করে টাকা ফেরত চাইলে সেই লোভী ব্যক্তি টাকা ফেরত না দিয়ে হুমকি ধামকি দেয় এবং মোবাইল নাম্বার বন্ধ করে দেয়।

নিরুপায় হয়ে অনেক দিন পরে কেন্দুয়া থানায় এসে বিস্তারিত বলে আয়নুদ্দিন কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।কেন্দুয়ার থানা পুলিশ তার অভিযোগ শুনে সাহায্যের হাত সম্প্রসারিত করে পাশে দাঁড়ায়। বিষয়টি নেত্রকোনার মানবিক পুলিশ সুপার জনাব,আকবর আলী স্যারের দিক নির্দেশনায় প্রযুক্তির মাধ্যমে নওগাঁ জেলা থেকে সেই টাকা উদ্ধার করে দেয় কেন্দুয়া থানা পুলিশ।

টাকা হাতে পেয়ে আয়নুদ্দিনের মনে হলো আকাশের চাঁদ হাতে পেয়েছে।আবেগ আপ্লুত হয়ে দু’ হাত তুলে বাংলাদেশ পুলিশ তথা কেন্দুয়া থানা পুলিশের জন্য দোয়া করেন। সেবা দিয়ে ভালোবাসা পাওয়া পরম আনন্দের। সে ক’জনেই বা পারে। এই ব্যাপারে জানতে চাইলে,

ওসি রাশেদুজ্জামান বলেন, পুলিশ জনতার আপনারা যে কোন ধরনের সমস্যা নিয়ে আসুন আমরা আয়নুদ্দিনের মত আরো কঠিন সমস্যা সমাধান করার চেষ্টা করব ইনশাআল্লাহ্।