কুলিয়ারচরের হাতের আঙ্গুল কাটা ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার

জয়নাল আবেদীন রিটন, ভৈরব প্রতিনিধি: কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরের পূর্ব ফরিদপুর এলাকার ব্রহ্মপুত্র নদের তীড় থেকে এক হাতের চার আঙ্গুল কাটা ক্ষতবিক্ষত অপ্সাত (৩০) এক ব্যাক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার বেলা একটার দিকে কুলিয়ারচর থানার পুলিশএ লাশ উদ্ধার করে। নিহতের পরনে একটি নিল রংয়ের জিন্সের পেন্ট এবং একটি সাদা সেন্ডু গেঞ্জী পরিহিত ছিল। ঘাতকরা তার এক হাতে ৪ আঙ্গুল কেটে নেত্তয়া সহ ভাড়ী কোন বস্তু দিয়ে আঘাত করে তার মুখমন্ডল থেতলে দেয় যাহাতে তার কোন পরিচয় সনাক্ত করা না যায়।

প্রাথমিক তদন্ত শেষে লাশটি ময়না তদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ সদর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। লাশ পড়ে থাকার খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়ার সাথেসাথে এলাকার নানা বয়সী উৎসুক নারী পুরুষ দল বেধে ঘটনাাস্থলে এসে স্থলে ভীড় জমায়।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায় আজ সকাল ১১টা দিকে কুলিয়ারচর উপজেলার ফরিদপুর পূর্বপাড়া সুইচগেইট এলাকায় জনৈক এলকাবাসী গরু চড়াতে এসে লাশটি দেখে স্থানীয় মেম্বার কে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ এসে ঘটনা স্থলে গিয়ে লাশের প্রামমিক তদন্ত শেষ করেন।

এ সময় খবর পেয়ে ভৈরব ও কুলিয়ার চর জোনের এ এস পি রেজোয়ান দিপু ঘটনা স্থলে ছুটে আসেন। পুলিশ ধারনা করছে পূর্ব শত্রুতার জেড়ে এ হত্যাকান্ড সংঘঠিত হয়ে থাকিতে পারে। এ এস পি ভৈরব সার্কেল রেজোয়ান দিপু জানান, দুপুর বারটার দিকে সংবাদ পাই যে ফরিদপুর ইউনিয়নের ফরিদপুর পুর্বপাড়া গ্রামে এশটি অপ্সাত পুরুষের লাশ পাওয়া গেছে।

এর পর পরই আমরা আসি। এখন পর্যন্ত লাশের পরিচয় পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় জড়িতদের খোজে বের করতে পিবিআইয়ের মাধ্যমে এনআইডি সনাক্তের চেষ্টা করা হবে বলে পুলিশ জানায়। এই ব্যাপারে আইনগত ব্যাবস্থা প্রক্রিয়াধিন।