কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বহি: বিভাগে করোনা পরীক্ষা করতে পারছে না রোগীরা

বশিরুল ইসলাম, কুমিল্লা প্রতিনিধিঃ কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বহিঃবিভাগে আসা রোগীদের কোন সেম্পল নেওয়া হয় না বা করোনা পরীক্ষার সুযোগ নেই। নিজ নিজ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সেম্পল দিয়ে পরীক্ষা করতে হবে। কিন্তু সেখানে (উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে) অনেকেই সেম্পল দিতে পারছেন না বলে অভিযোগ উঠেছে।

জনবল সংকট এবং একটি মাত্র মেশিন হওয়ায় জেলায় সকলের চাহিদা অনুযায়ী পরীক্ষা করা যাচ্ছেনা। এদিকে জেলার একমাত্র পিসিআর মেশিনটিও এখন সেম্পল পরীক্ষা করে সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে। ইতোমধ্যে মেশিনটিতে সমস্যা হচ্ছে বলে সংশ্লিষ্টদের ধারণা।

মেশিনটিতে ২ শিফটে প্রতিদিন ১৮০টি সেম্পল পরীক্ষার সক্ষমতা রয়েছে। কিন্তু প্রতিদিন গড়ে ৪শ থেকে ৫শ সেম্পল জমা হচ্ছে। যার কারণে হাজারের অধিক সেম্পল জমে আছে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ পিসিআর ল্যাবে। এদিকে ডেডিকেটেড কোভিড ১৫৫শয্যা বিশিস্ট হাসপাতাল উদ্বোধনের পর থেকে শুধুমাত্র করোনা পজেটিভ রোগীদের ভর্তি করছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

এ বিষয়ে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মুজিবুর রহমান জানান, কুমিল্লা মেডিকেল কলেজের পিসিআর মেশিনটি লোড নিতে পারছেনা। প্রায় হাজারের অধিক সেম্পল জমে আছে। তাছাড়া সেম্পল বেশিদিন রাখাও যায়না। ঢাকায় সেম্পল পাঠানোর চেষ্টা চলছে।

আমাদের হাসপাতালে শুধুমাত্র ভর্তি রোগীর সেম্পল নেওয়া হবে। করোনা উপসর্গ নাই বা উপসর্গ কম রোগীদের বাড়ীতে চিকিৎসা নিতে বলে থাকি। তাছাড়া যেহেতু ডেডিকেটেড কোভিড হাসপাতাল হয়েছে সেহেতু ৯০ ভাগ পজেটিভ এবং ১০ভাগ সন্দেহজনক রোগী ভর্তি হতে পারবে। কিন্তু নেগেটিভ রোগী ভর্তি হতে পারবেনা।

সেম্পল টেস্টে যদি পজেটিভ আসে এবং শ্বাসকষ্ট হয় তাহলেই শুধুমাত্র ভর্তি করতে পারবো। যদি আরো একটি পিসিআর মেশিন আসে এবং সেম্পল জট কমে যায় তাহলে পূর্ণাঙ্গভাবে সেম্পল নেওয়া হবে। তবে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বহি: বিভাগের মাধ্যমে সেম্পল নেওয়ার কোন সুযোগ নেই।