কুমিল্লায় মুরাদনগরের কৃষকের ধান কাটায়় কাস্তে হাতে চেয়ারম্যান সহ আঃলীগের নেতা কর্মীরা

এম এ বাশার, কুমিল্লা উত্তর জেলা প্রতিনিধি: করোনা ভাইরাসের দূর্যোগ মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রী ও দেশরত্ন শেখ হাসিনার নির্দেশে কুমিল্লা মুরাদনগরের কৃষকের পাশে দাঁড়াল ২২নং টনকী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও মেম্বার সহ আ,লীগের নেতাকর্মীরা। জানা গেছে, মুরাদনগরের উপজেলার বাইড়া গ্রামে বোরো ধান পাকতে শুরু করেছে।তবে লকডাউনের কারণে শ্রমিক সংকটে ধান কাটতে পারছিলেন না টনকী ইউনিয়নের বাইড়া গ্রামের কৃষক কাদির মিয়া ও প্রতিবন্দী লিমন ।

খবর পেয়ে, বৃহস্পতিবার (২৫এপ্রিল) দুপুরে উপ জেলার টনী ইউনিয়নের বাইড়া গ্রামে হাওরে গিয়ে বাইড়ার কৃষক কাদিরের ৩০ শতাংশ জমির ও প্রতিবন্দী লিমনের ৩০ শতাংশ জমির পাঁকা ধান স্বেচ্ছাশ্রমে কেটে দিয়েছেন। ধান কাটায় অংশ নেন ২২ নং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জনাব জাকির হোসেন সরকার। টনকী ইউনিয়ন ৮ নং ওয়ার্ডের মেম্বার জনাব মোঃরাশেদুল হক রাসেদ, ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আনিসুর রহমান তামিম, ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি জনাব রনি আহমেদ, ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জনাব ফয়সাল আহমেদ জুয়েল।

ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি জনাব খোরশেদ আলম। ইউনিয়ন ছাত্রলীগের ইমন ও আল-আমিন এবং 5 নং ওয়ার্ডের যুবলীগের সদস্য রুহুল আমিন কৃষক লিমন ও কাদির বলেন, করোনা ভাইরাস দূর্যোগের কারণে শ্রমিক সংকট থাকায় খুব চিন্তায় ছিলাম কিভাবে পাঁকা ধান গুলো কাটা হবে। এই দূরসময়ে চেয়ারম্যান ও আ,লীগের নেতাকর্মীরা আমার ধান গুলো কেটে বাড়িতে পৌঁছিয়ে দেয়ার ব্যবস্থা করেছে।এই জন্য আমি তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ। জনাব জাকির হোসেইন চেয়ারম্যান জানান, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে আপনারা ঘরে থাকুন, মানবতার সেবায় আমরা বাইরে আছি। শ্রমিক সংকটের কারণে আমাদের ইউনিয়েনের যে কোনো কৃষকের ধান কেটে দিতে প্রয়োজনীয় সহোযোগীতা ও মানবতার হাত থাকবেই ।