কুড়িগ্রামের ধরলা ও ব্রহ্মপুত্র নদীর পানি বৃদ্ধি প্রচন্ড স্রোতে নদী ভাঙ্গন

মজাহারুল ইসলাম মিলন, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ  কুড়িগ্রামে কয়েকদিনের বর্ষণ ও উজান থেকে পাহাড়ি ঢল নামায়। ধরলা ও ব্রহ্মপুত্র নদীতে পানি বৃদ্ধি সহ প্রচন্ড স্রোত দেখা দেয়। এতে নদী ভাঙ্গন শুরু হয়। ১৮ জুন বৃহস্পতিবার সরেজমিনে খোঁজ খবর নিয়ে জানা যায়,

সদর উপজেলার পাঁচগাছী ইউনিয়নের দক্ষিণ কদমতলা,নওয়াবস মোগলবাসা ইউনিয়নের চর কৃষ্ণপুর মুন্সিপাড়া চর সিতাইঝাড় ও উলিপুর উপজেলার বেগমগঞ্জ ইউনিয়নের আকেল মামুদ কবিরাজপাড়া মিয়াজী পাড়া আফতাবগঞ্জ বেগমগঞ্জ সরকারপাড়া উত্তর বালাডোবা,দক্ষিন বালাডোবা, ফকিরের চর মশালের চর বুড়াবুড়ী ইউনিয়নের ফকির মোহাম্মদ সহ নদী তীরবর্তী এলাকায় ব্যাপক ভাঙ্গন শুরু হয়েছে এতে আবাদি জমি বসতভিটা নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে।

আবাদীজমি হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে পড়েছে অনেকে। এ ব্যাপারে বেগমগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যান বেলাল হোসেন এর সাথে মুঠোফোনে এ প্রতিবেদক এর সাথে কথা হলে তিনি জানান ইউনিয়নে বেশকিছু গ্রামে নদী তীরবর্তী এলাকায় ভাঙ্গন চলছে বিষয়টি আমি সরেজমিনে খোঁজ খবর নিয়েছি এবং উলিপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবগত করিয়াছে। স্থানীয় আহাদ আলী, নুর আলী, শমসের আলী, সাদেক আলী ও এনামুল হক সহ বেশ কয়েকজন জানান গত তিনদিনের ভাঙ্গনে প্রায় ৫ একর আবাদি জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে।

অনেকের বসতভিটা বিলীন হাওয়াই পরিবারের লোকজন সহ নিরাপদ স্থানে আশ্রয় নিচ্ছে। নদী ভাঙ্গন পরিস্থিতি অব্যাহত রয়েছে। এ ব্যাপারে দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছে।