কাল উদ্বোধন হচ্ছে চট্টগ্রামের শেখ রাসেল পানি শোধনাগার

চট্টগ্রামে হালদা নদীর তীরে শেখ রাসেল পানি শোধনাগার চালু হচ্ছে কাল। এর মাধ্যমে বন্দরনগরীর সুপেয় পানির চাহিদার ৮৩ ভাগ সরবরাহ সম্ভব হবে।

বিশ্বব্যাংক ও সরকারের যৌথ অর্থায়নে ২০১৫ সালে শুরু হয় এ প্রকল্পের কাজ। প্রায় ১৮ শ কোটি টাকা ব্যয়ে সেই কাজ শেষ হয় ২০১৮ সালের অক্টোবরে। একবছর পরীক্ষামূলক চালানোর পর রোববার (২৬ জানুয়ারি) থেকে যাচ্ছে আনুষ্ঠানিক উৎপাদনে।  প্রকল্পের অধীনে বসানো হয়েছে ১২৬ কিলোমিটার ট্রান্সমিশন ও ডিস্ট্রিবিউশন পাইপলাইন।

চট্টগ্রাম ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী একেএম ফজলুল্লাহ বলেন, রোববার (২৬ জানুয়ারি) মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে উদ্বোধন করবেন। পুরোপুরি মডার্ণ ডিজাইনে এটি করা হয়েছে। আর সেকারণেই এটার পানির কোয়ালিটি অনেক ভাল।

এছাড়া, রাঙ্গুনিয়ায় ১৫শ’ কোটি টাকা ব্যয়ে শেখ হাসিনা পানি শোধনাগার প্রকল্প-দুই ও ৫০ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে দক্ষিণ চট্টগ্রামের বোয়ালখালী ভান্ডালজুরি পানি সরবরাহ প্রকল্পের কাজ চলছে। চট্টগ্রাম ওয়াসার বোর্ড সদস্য মহসিন কাজী বলেন, ‘যে সব প্রকল্প পাইপলাইনে আছে, সে সব প্রকল্পের মাধ্যমে চট্টগ্রাম ওয়াসা, চট্টগ্রামবাসীর পানির চাহিদা পুরন করে উদ্বৃত্ত পানি বিভিন্ন শিল্পজোনে সরবরাহের সক্ষমতা রাখবে।’