কালাই তেলিহার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাৎসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ

ওমর আলী বাবু,  জয়পুরহাট প্রতিনিধি: কালাই উপজেলার তেলিহার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাৎসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। উদয়পুর ইউনিয়নের তেলিহার গ্রামের সোলায়মান আলী নামে এক ব্যক্তি তেলিহার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শেখ ফরিদের বিরুদ্ধে উপজেলা চেয়ারম্যান বরাবর এমন লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগে তিনি বলেন, প্রধান শিক্ষক নিয়মিত স্কুলে আসেনা, সভাপতির স্বাক্ষর জাল করে টাকা উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেন, নতুন বই আসলে তাও সঠিকভাবে বিতরন করেনা এবং যতগুলো শিক্ষার্থী তার চেয়ে বেশী শিক্ষার্থী উপবৃত্তির টাকা পায় এরকম অনিয়ম আমি কোথাও দেখিনি। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার ইতিয়ারা পারভীন বলেন, তেলিহার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠেছে এমন অভিযোগের ভিত্তিতে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের একজন সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হলে অভিযোগগুলোর সত্যতা খুঁজে পান।

এবং এ বিষয়ে প্রধান শিক্ষকের কাছে কারন দর্শানোর চিঠি দেওয়া হয়েছে, চিঠির উত্তর পেলেই আমরা জেলা শিক্ষা অফিসে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সুপারিশ করব। এ বিষয়ে কালাই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মিনফুজুর রহমান মিলন জানান, তেলিহার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শেখ ফরিদের বিরুদ্ধে আমার কাছে লিখিত অভিযোগ আসলে আমি উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে বিষয়টি তদন্ত করার জন্য বলি। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস এ বিষয়ে তদন্ত করে অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পেয়েছেন যার লিখিত রিপোর্ট আমাকে জমা দেয় এবং তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সত্য প্রমানিত হলে বিভাগীয়ভাবে সর্বোচ্চ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য অবহিত করব।

এছাড়াও অবাক হওয়ার মত বিষয় হল যে ঐ বিদ্যালয়ের মোট শিক্ষার্থী সংখ্যা ১২৪ জন কিন্তু উপবৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থী সংখ্যা ১৫৬ জন যা সরকারী অর্থ অপচয়ের সামিল। উক্ত অভিযোগের ভিত্তিতে তেলিহার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শেখ ফরিদের সাথে কথা বলতে চাইলে তিনি অসুস্থ বলে বিষয়টি এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। পরে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তার সকল অভিযোগ ভিত্তিহীন ও মিথ্যা বলে দাবী করেন।