কারফিউয়ের সময় বাড়ল জেদ্দায়, ফের মসজিদে নামাজ বন্ধ

করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে সৌদি আরবের জেদ্দায় চলমান কারফিউয়ের সময়সীমা আবারও বাড়ানো হয়েছে। আগামীকাল শনিবার থেকে কারফিউ বিকেল ৩টায় শুরু হয়ে ভোর ৬টায় শেষ হবে।

গোটা সৌদি আরবে চলছিল কারফিউ শিথিলের দ্বিতীয় ধাপ। এই ধাপে দিনভর অফিস, আদালত ও ব্যবসায়িক কর্মযজ্ঞ চলার পর রাতের ৮টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত চলছিল কারফিউ। তবে পরিস্থিতি বিবেচনায় জেদ্দার কারফিউয়ের সময় এবং বিচরণক্ষেত্র সীমাবদ্ধ করা হলো।

নতুন ধাপে যেসব ধারা যুক্ত হয়েছে-

১. রাত ৮টার পরিবর্তে বিকেল ৩টা থেকে কারফিউ শুরু হয়ে পরদিন ভোর ৬টায় শেষ হবে।

২. মসজিদে শুধু আজান হবে। নামাজ পড়া বন্ধ থাকবে।

৩. সরকারি এবং বেসরকারি অফিস বন্ধ থাকবে।

৪. পাঁচজনের বেশি মানুষ জমায়েত হওয়া নিষিদ্ধ।

৫. খাবার হোটেল আবার বন্ধ করা হল। শুধুমাত্র পার্সেল নেওয়া যাবে।

৬. অভ্যন্তরীণ বিমান, ট্রেন ও বাস চলাচল করবে।

৭. কারফিউ শিথিলের সময় অর্থাৎ ভোর ৬টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত জেদ্দা থেকে বের হওয়া যাবে এবং জেদ্দায় প্রবেশ করা যাবে।

তবে কারফিউয়ের মধ্যেও জেদ্দার সঙ্গে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটগুলো চালু থাকবে। এ সময় বিমানযাত্রীর সঙ্গে থাকা বোর্ডিংপাস অথবা টিকেট তার চলাচলের অনুমতি বহন করবে।

গত ২০ মার্চ সৌদি আরবের সব মসজিদে নামাজ পড়া স্থগিত হয়ে যাওয়ার পর দীর্ঘ ১১ সপ্তাহ পর আজ শুক্রবার দেশটির মসজিদগুলোতে জামাতে জুম্মার নামাজ অনুষ্ঠিত হল। আবার আজই জেদ্দায় মসজিদে নামাজ আদায় স্থগিতের ঘোষণা এল।

আগামীকাল শনিবার থেকে আগামী ২১ জুন পর্যন্ত ১৫ দিন এই বিধিনিষেধগুলো কেবলমাত্র জেদ্দার জন্য প্রযোজ্য। তবে প্রয়োজনে সৌদি আরবের যে কোনো অঞ্চলেই পরিস্থিতির সাপেক্ষে এই বিধিনিষেধসমূহ চালু হতে পারে।