করোনা সংক্রমণ রোধে মেঘনায় নদীতে কোস্টগার্ডের প্রচার অভিযান

 নুরুল আমিন দুলাল ভূঁইয়া, লক্ষ্মীপুর জেলা প্রতিনিধি: লকডাউন বস্তবায়নে ২১ জেলার যাতায়াত রুট লক্ষ্মীপুর মজুচৌধুরী হাট ফেরিঘাট-ভোলা বরিশালসহ প্রায় সম্র্পূণ রুটে যাত্রীপাড়া পাড় ও কোন ভাবে মানুষের আসা যাওয়া করতে না পারে সে জন্য সম্পূর্ণ রুপে বন্ধসহ করোনার সংক্রমণ রোধে উপকূলীয় জেলা লক্ষ্মীপুর নৌপথ ও নদী তীরবর্তী চরাগুলোতে বসবাসরত মানুষের মধ্যে সচেতনতামূলক প্রচারনা চালিয়েছে কোস্টগার্ড। দেওয়া হচ্ছে খাদ্য সহায়তাও।

কোস্টগার্ড স্টেশন কমান্ডার লেফট্যানেন্ট মেহিদ হাসান বলছেন, লকডাউন বাস্তবায়নসহ নদী তীরবর্তী মানুষকে ঘরে থাকা নিশ্চিত করতে করা হচ্ছে সচেতনা কার্যক্রম পরিচালনা। করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঝুঁকি মোকাবেলা ও সুরক্ষার প্রয়োজনে ১২ এপ্রিল থেকে লক্ষ্মীপুর জেলায় লকডাউন দেওয়া হয়। সে সাথে পার্শবর্তী সকল জেলা থেকে যানবাহন ও সাধারণ মানুষের অবাধে প্রবেশ এবং বহিঃগমন ঠেকাতে নৌ-পথে চলতে না পারে থাকে লকডাউনের আওতায়। সে সাথে লক্ষ্মীপুর জেলায় লকডাউন বস্তবায়নে ২১ জেলার যাতায়াত রুট লক্ষ্মীপুর মজুচৌধুরী হাট ফেরিঘাট-ভোলা বরিশালসহ প্রায় সম্পূর্ণ রুটে যাত্রীপাড়া পাড় ও কোন ভাবে মানুষের আসা যাওয়া সম্পূর্ণ রুপে বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে জেলা প্রশাসন হতে।

আর জেলা প্রশাসনের নির্দেশনা বাস্তবায়নে নৌ রুটে ওই রুটে জনসমাগম ও গণপরিবহন রোধে টহলসহ কঠোর অবস্থান জারি করে কাজ করছে কোস্টগার্ড। নদীর তীরবতর্ী এলাকার মানুষকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে সে জন্য কাজ করতে যোগ হয়েছে অতিরিক্ত কোস্টগার্ড সদস্য। জোরদার করা হচ্ছে নৌ পথ সিমানা এলাকা কার্যক্রম। এছাড়া নদীর পাড়ে চরে বসবাসরত লোকজনকে ঘরে রাখাসহ তাদের নিকট খাদ্য সহায়তা পৌঁচে দেওয়াসহ তুলে ধরা হচ্ছে নানা মুখী সচেতনতামূলক প্রচারনা। মো: ইউছুফ ছৈয়াল জানান, লক্ষ্মীপুর জেলায় ঘোষিত লকডাউন কেউ যাতে নদী হয়ে জেলার বাইরে যেতে ও প্রবেশ করতে না পারে সে জন্য ২১ জেলার যাতায়াত রুট লক্ষ্মীপুর মজুচৌধুরী হাট ফেরিঘাট- ভোলা বরিশালসহ প্রায় সম্পপূর্ন রুপে বন্ধসহ নদী পথে জনসমাগম ও গণপরিবহন রোধে টহলসহ কঠোর অবস্থান রয়েছে কোস্টগার্ড,নৌ পুলিশসহ আইনশৃঙ্খিলা বাহিনী ।

লেফট্যানেন্ট মেহিদ হাসান, স্টেশন কমান্ডার, কোস্টগার্ড, লক্ষ্মীপুর। তিনি জানান, মেঘনা নদী তীরবর্তী মানুষকে সচেতন করতে এবং ঘরে থাকা নিশ্চিত করতে এই কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। মেঘনা নদীর মজুচৌধুরী হাট ফেরিঘাটসহ মেঘনার বিভিন্ন পয়েন্টে জোরদার করা হচ্ছ। নদীপথ দিয়ে যেন যাতায়াত করতে না পারে সে জন্য নিয়মিত টহলের পাশপাশি সেখানে অতিরিক্ত ফোর্স মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়া মহামারী করোনা ঠেকাতে বিশেষ করে লকডাউন বা সীল করা হয়েছে ওইসব এলাকায় নদীপথে কেউ যাতে বাইরে যেতে ও প্রবেশ করতে না পারে সেজন্য ওইসব এলাকায় নৌ-পুলিশ বিশেষ অভিযান অব্যাহত রয়েছে। নু