করোনা শনাক্তের ৪ দিন পর ১৫ ইন্টার্ন চিকিৎসকের নেগেটিভ

সিলেট প্রতিনিধি: উপসর্গ না থাকলেও নমুনা পরীক্ষার পর গত সোমবার সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ১৬ ইন্টার্ন চিকিৎসকের করোনাভাইরাসজনিত কোভিড-১৯ রোগ শনাক্ত হয়। পরে আবার নমুনা পরীক্ষায় গতকাল বৃহস্পতিবার ১৬ জনের মধ্যে ১৫ জনেরই করোনা নেগেটিভ আসে। তবে আপাতত তাঁরা আইসোলেশন থেকে মুক্তি পাচ্ছেন না। দ্বিতীয় দফায় করোনা পরীক্ষার পর নেগেটিভ এলে তাঁরা ছাড়া পাবেন।

এদিকে, করোনা শনাক্ত হওয়া অপর ইন্টার্ন চিকিৎসক হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসাধীন। এর আগে গত ২৩ এপ্রিল থেকেই কলেজের ইন্টার্ন হোস্টেলে কোয়ারেন্টিনে ছিলেন ওই ১৬ জন।

ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, গত ২৩ মার্চ গাজীপুর থেকে আসা হাসপাতালের এক ইন্টার্ন চিকিৎসকের করোনা শনাক্ত হয়। এরপর বাইরের বিভিন্ন জেলা থেকে সিলেটে আসা ৭৮ ইন্টার্ন চিকিৎসককে হোস্টেলে কোয়ারেন্টিনে রেখে নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এর মধ্যে ঢাকার ল্যাবে পরীক্ষার পর গত সোমবার ১৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়। ওই ১৬ জনের মধ্যে ১৫ জনই নারী। আক্রান্তদের শরীরে তেমন কোনো উপসর্গ না থাকায় মেডিকেল কলেজের হোস্টেলেই আইসোলেশনে রাখা হয় তাঁদের। পরে গত মঙ্গলবার আবারও তাঁদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য নেওয়া হয়।

এদিকে, একজনের শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। দ্বিতীয় দফা পরীক্ষায় গতকাল বৃহস্পতিবার হাসপাতালে ভর্তি একজন ছাড়া বাকিদের করোনা নেগেটিভ আসে।

এ তথ্য নিশ্চিত করে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. হিমাংশু লাল রায় বলেন, ‘আরেকবার তাঁদের নমুনা পরীক্ষা করা হবে। মূলত পরপর দুবার নমুনা পরীক্ষার ফল নেগেটিভ এলে আমরা রোগীকে সুস্থ ঘোষণা করি।’