করোনা থেকে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ঠাকুরগাঁও এ রাতভর অভিযান

জয় মহন্ত অলক ঠাকুরগাঁও : সারা রাত জেগে ঠাকুরগাঁওয়ের প্রবেশদার ২৯ মাইল নামক এলাকায় তল্লাশী চৌকি বসিয়ে একে একে যাত্রী বোঝাই ১৫টি বাস, ট্রাক, মাইক্রো, এ্যাম্বুলেন্স ও কাভার্ড ভ্যান আটক করেছেন ঠাকুরগাঁও সদর থানার অফিসার ইনচার্জ তানভীরুল ইসলাম ও পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) গোলাম মর্তুজা। গতকাল রাতের আঁধারে নারায়ণগঞ্জ থেকে আসা রুপা নামে একটি যাত্রীবাহি বাস ঠাকুরগাঁওয়ের নেকমরদে প্রবেশ করেছে এমন খবর ছড়িয়ে পড়লে ঠাকুরগাঁওবাসির নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখে ৮ এপ্রিল রাতভর এ অভিযান পরিচালনা করেন সদর থানার ওসির নেতৃত্বে গঠিত একটি চৌকষ টিম। আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় ঠাকুরগাঁওয়ের খবরকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তানভীরুল ইসলাম। তিনি চ্যানেল এসকে জানান, ঠাকুরগাঁওয়ে এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাসের কোন সংক্রমণ ঘটেনি। কাজেই ঠাকুরগাঁওয়ে যারা অবস্থান করছে তারা নিরাপদ। কিন্তু রাতের আঁধারে যদি অন্য কোন সংক্রমিত জেলা থেকে কেউ প্রবেশ করে তাহলে ঠাকুরগাঁওবাসির জন্য তা কাল হয়ে দাড়াবে। ঠাকুরগাঁওবাসির নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সারারাত ঠাকুরগাঁওয়ের প্রবেশদার ২৯ মাইলে পাহাড়া বসিয়ে যাত্রীসহ ১৫ টি যানবাহন আটক করা হয়। তিনি আরও জানান, এসব যানবাহনের যাত্রীদের প্রথমে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে তাদের প্রাথমিক চেকআপ করিয়ে সদর উজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশে ১০০জন যাত্রীকে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। এছাড়াও এসময় ভ্রাম্যমাণ আদালত সরকারি আদেশ অমান্য করে অবৈধভাবে গণপরিবহন চালু রাখায় প্রত্যেকটি যানবাহনকে পাঁচ হাজার টাকা করে জরিমানা প্রদান করেন বরেও জানান তিনি।