করোনায় ৩ চিকিৎসক আক্রান্ত; করিমগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স লকডাউন

তিনজন চিকিৎসক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। সেইসঙ্গে হাসপাতালের ১৪ জন চিকিৎসক, ২০ জন নার্সসহ সব কর্মচারীকে কোয়ারেন্টিনে থাকতে বলা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার দুপুর থেকে লকডাউন কার্যকর হয়।

জেলার সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, কিশোরগঞ্জ জেলার মধ্যে করিমগঞ্জ উপজেলায় সবচেয়ে বেশি তিনজন চিকিৎসকসহ আটজন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। তা ছাড়া সারা জেলায় এ পর্যন্ত চারজন চিকিৎসকসহ ১৮ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

সিভিল সার্জন জানান, করিমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একজন নারী চিকিৎসকের স্বামী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন। স্ত্রীর কর্মক্ষেত্র সুবাদে ওই চিকিৎসক স্বামীর এ হাসপাতালে যাতায়াত ছিল। পরে ওই নারী চিকিৎসকের করোনা শনাক্ত হওয়ায় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাসহ হাসপাতালের ১৪ চিকিৎসকের সবাইকে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়। একই সঙ্গে তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। ১৪ জনের মধ্যে গতকাল দুইজনের এবং আজ একজন চিকিৎসকের রিপোর্ট পজিটিভ হলে হাসপাতাল লকডাউনের সিদ্ধান্ত হয়।

এরপর থেকেই হাসপাতালের ভর্তি রোগীদের ছুটি দিয়ে জরুরি বিভাগসহ সব কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।