করোনায় টঙ্গীতে হাজ্বী কছিমউদ্দিন ফাউন্ডেশনের নানা উদ্যোগ

মোঃ আল-আমিন, টঙ্গী (গাজীপুর) প্রতিনিধিঃ গাজীপুরের টঙ্গীতে করোনায় গৃহবন্দী খেঁটে খাওয়া মানুষের জস্য হাজ্বী কলছিমউদ্দিন ফাউন্ডেশন হাতে নিয়েছে নানা উদ্যোগ।গাজীপুর সিটিকর্পোরেশনের ৫৪ নং ওয়ার্ডের একঝাঁক তরুণের সমন্বয়ে করা হয়েছে ৩৩ সদস্যের করোনা স্বেচ্ছাসেবী টিম।বিনামূল্যে দেয়া হচ্ছে নিত্যপন্য দ্রব্য।

ফাউন্ডেশনের সদস্যরা সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে দিন রাত কাজ করে যাচ্ছে মৃত্যু ঝুঁকি নিয়ে। করোনার কারনে যে মানুষেরা গৃহবন্দী হয়ে আছে,তাদের দুয়ারে পৌঁছে দিচ্ছেন খাদ্যদ্রব্য। এছাড়াও করোনা ভাইরাসের আক্রান্ত রোগীর পাশে থেকে চিকিৎসা সেবায় সহায়তা, হাসপাতালে নেয়া, লকডাউন করা বাড়িতে খাবারের ব্যবস্থা করা, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত মৃত ব্যক্তি দেহ দাফন কাজ সম্পন্ন করা ও মৃত ব্যক্তির পরিবারের পাশে থাকাসহ নানাবিধ করে যাচ্ছেন ফাউন্ডেশনের প্রতিটি সদস্য।

ফাউন্ডেশনের এমন কাজে খুঁশি এলাকার সর্বোস্তরের মানুষ।সুবিধাভোগী অনেকেই জানান,কখনও ভাবিনি ঘরে বসে থেকে খাবার পাবো।আমাদের বাইরে যেয়ে লাইন ধরতে হয়না। ছবি তোলার জন্যেও কেউ চাপ দেয় না।শুরু থেকেই আমরা অন্তত খাবারের কোন চিন্তা করতে হচ্ছে না। স্বেচ্ছাসেবকরা এসে দিনে ২/৩ বার খোঁজ নিয়ে যায়। আমরা আল্লাহর রহমতে এই ওয়ার্ডে ভালই আছি।

ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ইঞ্জিঃ এম. এম হেলাল উদ্দিন বলেন, এই ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে প্রায় ছয় হাজার অসহায় গৃহবন্দী পরিবারকে নিত্যপন্য বিনামূল্যে বিতরন করছি। আমাদের সেচ্ছাসেবীরা গৃহবন্দী মানুষের ঘরে ঘরে খাদ্যদ্রব্য পৌঁছে দিচ্ছে। মধ্যবিক্তদের জন্য খোলা হয়েছে জরুরী হট লাইন যাতে মিলবে সহযোগিতা।

প্রতিষ্ঠাতা নিজের ফেইসবুক আইডি ও পেইজের মাধ্যমে যদি কোর পরিবার সহযোগিতা চায় তবে তাৎক্ষনিক ভাবে মিলবে খাদ্য সহযোগিতা।

তিনি আরও বলেন, সেচ্ছাসেবী টিমের স্বাস্থ্য সুরক্ষা জন্য যাবতীয় সরঞ্জাম সরবরাহ করছে ফাউন্ডেশন গত ২৬ শে মার্চ থেকে শুরু করে এখনো এই কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে এবং যতদিন সংকট থাকবে ততদিন কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলেও তিনি জানান।