করোনায় একদিনে হবিগঞ্জে ৩ জনের মৃত্যু

সুশীল চন্দ্র দাস, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি: হবিগঞ্জে একদিনে করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে তিনজনের মৃত্যু সংবাদ পেলেন জেলাবাসী। এর মধ্যে দুইজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেও একজন মারা গেছেন শুধুমাত্র উপসর্গ নিয়ে।

স্বাস্থ্য বিভাগ তার নমুনা পরিক্ষার জন্য সংগ্রহ করেছে। একদিনে তিনজনের মৃত্যুর সংবাদে সচেতন মহলে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লেও বাড়েনি শতর্কতা। শারীরিক দূরত্ব বা স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই চলাচল করছেন সাধারণ মানুষ। বৃহস্পতিবার বিকেলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মনি রানী রায় নামে হবিগঞ্জের এক গৃহবধু সিলেটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

যদিও তার মৃত্যুর সংখ্যাটি সিলেটের তালিকায় থাকবে বলে জানা গেছে। তিনি হবিগঞ্জ পৌরসভার উমেদনগর মধ্যহাঠির বিশিষ্ট ব্যবসায়ি উজ্জ্বল রায়ের স্ত্রী। অন্যদিকে আজমিরীগঞ্জের এক যুবক করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়ার পর বৃহস্পতিবার তার করোনা পজেটিভ আসে। মারা যাওয়া নিতেন্দ্র দাশ (৫৫) উপজেলার জলসুখা গ্রামের বাসিন্দা।

২২ জুন তিনি নমুনা দেয়ার পর বাড়িতেই মারা যান। এছাড়া, জ্বর ও শ্বাসকষ্টসহ বিভিন্ন করোনা উপসর্গ নিয়ে হবিগঞ্জ জেলা কারাগারে এক আসামির মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) রাতে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। নিহত আসামির নাম শাহীন (৪০)। তিনি চুনারুঘাট উপজেলার বড়আব্দা গ্রামের সালেহ আহমদের ছেলে।

মাদক মামলার কারাগারে ছিলেন তিনি। হবিগঞ্জ কারাগারের জেলার মো. জয়নাল আবেদীন ভূঞা বলেন শাহীন একটি মাদক মামলায় গত ১২ জুন কারাগারে আসেন। মামলাটি বর্তমানে বিচারাধীন রয়েছে। তার আসামি নম্বর ২৪৭০/২০। তিনি আগে থেকেই শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। বুধবার (২৪ জুন) দিবাগত রাতে তার শরীরে জ্বর আসে। ফলে বৃহস্পতিবার সকালে তাকে সদর আধুনিক হাসপাতালে পাঠানো হয়।

সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়েছে। উল্লেখ্য- এ পর্যন্ত হবিগঞ্জে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৬ জনের মৃত্যুর সংবাদ নিশ্চিত হওয়া গেছে। জেলা মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫২২ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়ছেন ১৮২ জন।