করোনার আসন্ন ভয়াবহতা নিয়ে রাশিয়াকে পুতিনের সতর্কতা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বিশ্বব্যাপী করোনা প্রাদুর্ভাবের মুখেও বেশ কিছুদিন যেন এর নাগালের বাইরে ছিল ভ্লাদিমির পুতিনের দেশ রাশিয়া। কিন্তু বিগত কিছুদিনে এ দেশেও ধীরে ধীরে নিজের থাবা বিস্তার করেছে করোনা। এরই মাঝে রাশিয়ায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৮ হাজারেরও বেশি মানুষের। মৃত্যু হয়েছে অন্তত ১৪৮ জনের।

সোমবার (১৩ এপ্রিল) রুশ সরকার জানায়, আগের ২৪ ঘণ্টায় রাশিয়ায় একদিনে সর্বোচ্চ ২ হাজার ৫৫৮ জনের করোনা শনাক্ত করা হয়েছে। এর বাইরে করোনার সন্দেহভাজন হিসেবে আরও ১ লাখ ৪০ হাজার মানুষ মেডিক্যাল পর্যবেক্ষণে আছে বলে জানানো হয়।

সার্বিক প্রেক্ষাপটে আগামী সপ্তাহগুলোতে রাশিয়ায় করোনা ভয়াবহ হয়ে উঠতে পারে বলে আশঙ্কা জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

সোমবার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে জ্যেষ্ট প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের সঙ্গে এক বৈঠকে পুতিন এ আশঙ্কার কথা জানান। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা যায়।

ওই বৈঠকে পুতিন বলেন, রাশিয়ায় ক্রমাগত করোনা পরিস্থিতি পরিবর্তিত হচ্ছে। এ ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে আগামী কয়েক সপ্তাহ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সম্ভাব্য যে কোনো পরিস্থিতি, এমনকি যে কোনো কঠিন ও ভয়াবহ পরিস্থিতি মোকাবিলায় এখনই রাশিয়াকে সর্বাত্মক প্রস্তুতি নিতে হবে।

করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও মেডিক্যাল স্কুল থেকে স্বাস্থ্যখাতে অতিরিক্ত লোকবল যুক্ত করারও পরামর্শ দেন পুতিন। প্রয়োজনে পরিস্থিতি মোকাবিলায় সেনাবাহিনী থেকেও মেডিক্যাল স্টাফ যুক্ত করা হবে বলে জানান তিনি।

করোনা ঠেকাতে রাশিয়ায় বর্তমানে লকডাউন চলছে। ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে লকডাউন ছাড়া অন্য কোনো বিকল্প নেই বলেও জানান ভ্লাদিমির পুতিন।

এদিকে করোনা রোগীদের চিকিৎসায় রাশিয়ার বিভিন্ন হাসপাতালে বর্তমানে ৪০ হাজার শয্যা প্রস্তুত রয়েছে এবং এ সংখ্যা ৯৫ হাজারে উন্নীত করার পরিকল্পনা আছে বলে পুতিনকে জানিয়েছেন উপ-প্রধানমন্ত্রী তাতায়ানা গোলিকোভা।