করোনার আক্রান্ত শিক্ষা উপমন্ত্রীর ভাই বোরহানুল হাসান চৌধুরী সালেহীন

মোঃ রাশেদ, চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলেন চট্টগ্রামে সাবেক মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর ছোট ছেলে বোরহানুল হাসান চৌধুরী সালেহীন।

রোববার (১০ মে) চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসের প্রধান পরীক্ষাগারে নমুনা পরীক্ষায় তার শরীরে করোনাভাইরাসের জীবাণু শনাক্ত হয়েছে। তিনি শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের ছোট ভাই।

সালেহীনের পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে, গত বৃহস্পতিবার (৭ মে) বোরহানুল হাসান চৌধুরী সালেহীনের জ্বর হয়। এছাড়া করোনাভাইরাসের আরও কিছু উপসর্গ দেখা গেলে তার কাছ থেকে নমুনা নিয়ে ফৌজদারহাটের বিআইটিআইডিতে পাঠানো হয়। রোববার সেই নমুনায় করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।

তবে বর্তমানে তার জ্বর নেই। ৩২ বছর বয়সী সালেহীন নগরীর নাসিরাবাদের মেয়র গলির নিজ বাসাতেই আইসোলেশনে আছেন এখন। বাসাতে তিনি একাই আছেন। তার স্ত্রী ও পুত্র বর্তমানে ঢাকায় রয়েছেন বলে পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে।

রোববার (১০ মে) ফৌজদারহাটের বিশেষায়িত হাসপাতাল ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেসে (বিআইটিআইডি) করোনার ২১৭টি নমুনা পরীক্ষায় মোট ২২ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়। আক্রান্তের মধ্যে ১১ জন পুরুষ রোগী, দুইজন নারী এবং একজন কিশোরী রয়েছে।

আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে রয়েছেন নগরীর কর্ণেলহাটের ৫৭ বছর বয়সী পুরুষ, চট্টগ্রাম ফিল্ড হাসপাতালের ৫৫ বছর বয়সী পুরুষ, সীতাকুণ্ডের ভাটিয়ারি এলাকার ৫০ বছরের পুরুষ, হালিশহর মুন্সীপাড়া এলাকার ৩৩ বছরের পুরুষ, উত্তর কাট্টলীর ২৭ বছরের পুরুষ, একে খান এলাকার ২৮ বছর বয়সী নারী, সরাইপাড়ার ৩৫ বছর বয়সী পুরুষ, হালিশহরের ৩৬ বছর বয়সী পুরুষ এবং একই এলাকার ৩৫ বছর বয়সী নারী, আগ্রাবাদ হাজীপাড়া এলাকার ৩৫ বছর বয়সী পুরুষ। এছাড়া আরও রয়েছেন হাটহাজারীর ডাকবাংলা রোড এলাকার ৬৫ বছর বয়সী পুরুষ, মিরসরাইয়ের অলিনগর এলাকার ১৪ বছরের কিশোরী এবং চন্দনাইশের দোহাজারী এলাকার ৪৮ বছরের এক পুরুষ চিকিৎসক।

এ নিয়ে চট্টগ্রামে করোনায় সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৬৮ জনে। এ পর্যন্ত ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন মোট ৬৪ জন।