করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৪ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ১৩২৯ জন এবং সুস্থ ৩১৮৫ জন : স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৩২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃত্যু হয়েছে সাত হাজার ৫২ জনের। নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন এক হাজার ৩৫৫ জন। সব মিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে চার লাখ ৯০ হাজার ৫৩৩ জনে।

 

রোববার (১৩ ডিসেম্বর) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। এতে বলা হয়, ঢাকা সিটিসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতাল ও বাড়িতে উপসর্গবিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন তিন হাজার ৩৯৩ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন চার লাখ ২০ হাজার ৮৯৬ জন।

সারাদেশে সরকারি-বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ১৪০টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে আরটি-পিসিআর ল্যাব ১১২টি, জিন-এক্সপার্ট ১৮টি, র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন ১০টি। এসব ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১২ হাজার ৮০২টি। মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১২ হাজার ৭৪৮টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ২৯ লাখ ৬৯ হাজার ৬৩০টি।

এতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার হার ১০ দশমিক ৬৩ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৫২ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮৫ দশমিক ৮০ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৪৪ শতাংশ। বিজ্ঞপ্তিতে নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৩২ জনের মধ্যে ২৪ জন পুরুষ ও নারী আটজন। এদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১৯ জন রয়েছেন। চট্টগ্রাম, খুলনা, সিলেট ও রংপুর বিভাগে তিনজন করে ১২ জন রয়েছেন। এছাড়া রাজশাহী বিভাগে একজন রয়েছেন। এদের মধ্যে হাসপাতালে মারা গেছেন ৩১ জন। বাড়িতে একজন।

মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে ২০ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে সাতজন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে তিনজন ও ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে একজন রয়েছেন। তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ১৪৬ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ১৩০ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন ৯৩ হাজার ৮৩৭ জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র নিয়েছেন ৮১ হাজার ২০৪ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১২ হাজার ৬৩৩ জন।