করোনায় ২৪ ঘণ্টায় দেশে মৃত্যু ৩৬ জনের , আক্রান্ত ১১৩৪ জন এবং সুস্থ ২২৩৯

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৩৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃত্যু হয়েছে সাত হাজার ১৯২ জনের। নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন এক হাজার ১৩৪ জন। সব মিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে চার লাখ ৯৬ হাজার ৯৭৫ জনে।

বৃহস্পতিবার (১৭ ডিসেম্বর) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, ঢাকা সিটিসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতাল ও বাড়িতে উপসর্গ বিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন দুই হাজার ২৩৯ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন চার লাখ ৩১ হাজার ৫৯০ জন।

সারাদেশে সরকারি-বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ১৪০টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে আরটি-পিসিআর ল্যাব ১১২টি, জিন-এক্সপার্ট ১৮টি, র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন ১০টি। এসব ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১২ হাজার ৭৭৬টি। আগের নমুনাসহ মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৩ হাজার ১৯১টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৩০ লাখ ৩৫ হাজার ৭২৮টি।

এতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার হার আট দশমিক ৬০ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৩৭ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮৬ দশমিক ৮৪ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৪৫ শতাংশ।

বিজ্ঞপ্তিতে নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৩৬ জনের মধ্যে ২৭ জন পুরুষ ও নারী নয়জন। এদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ২০ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে আটজন, রংপুর বিভাগে তিনজন, রাজশাহী বিভাগে দু’জন রয়েছেন। এছাড়া খুলনা, সিলেট ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে তিনজন রয়েছেন। এরা সবাই হাসপাতালেই মারা গেছেন।

মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে ২৯ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে চারজন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে দু’জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে একজন রয়েছেন।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ১৭৯ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ৮৯ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন ৯৪ হাজার ৫৪১ জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র নিয়েছেন ৮২ হাজার আটজন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১২ হাজার ৫৩৩ জন।