কন্যাশিশুর খণ্ডিত লাশ:কামড়ে খেলো শেয়াল কুকুর

গাজীপুরের মনিপুর এলাকায় বনের ভেতর থেকে পচা গলা অবস্থায় এক কন্যাশিশুর খণ্ডিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।ধারণা করা হচ্ছে দুর্বৃত্তরা শিশুটিকে জবাই করে হত্যার পর বনের ভেতর ফেলে রেখে গেছে। এবং পরে শেয়াল-কুকুরে কামড়ে দেহ-থেকে হাত-পা বিচ্ছিন্ন করে ফেলেছে। শনিবার সকাল ১১টার দিকে জয়দেবপুর থানা পুলিশ খন্ডিত শিশুর লাশ উদ্ধার করে।

শিশুটির নাম মুনিয়া আক্তার (৫) সে মনিপুর গ্রামের মঞ্জুর হোসেনের কন্যা।

শিশুটি গত ১০ নভেম্বর তার বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়। ওই ঘটনার পরিবারের পক্ষ থেকে একইদিন জয়দেবপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয় বলে জানিয়েছেন জয়দেবপুর থানার ওসি মো. জাবেদুল ইসলাম,

ঘটনার পর শনিবার সকালে স্থানীয়রা মনিপুরের সরকারি গজারি বনের ভেতর একটি শিশুর দেহ থেকে খণ্ডিত মাথা দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দিলে।

খবর পেয়ে পুলিশ মাথার অদূরে পড়ে থাকা হাত, পা বিচ্ছন্ন অবস্থায় দেখতে পায়। সকাল ১১টার দিকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে, মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানিয়েছেন জয়দেবপুর থানার থানার ওসি।