এ রায়ে রাষ্ট্রপক্ষ সন্তুষ্ট

রাজধানীর গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলা মামলার রায়ে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। তারা বলছে পূর্ণ রায় পর্যালোচনা শেষে আপিল করা হবে ।

বুধবার (২৭ নভেম্বর) দুপুর সোয়া ১২টার দিকে রায়ের সংক্ষিপ্ত বিবরণী পড়া শেষ করেন ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মজিবুর রহমান। রায়ে আট আসামির মধ্যে সাত জনকে ফাঁসি এবং একজনকে খালাস দেওয়া হয়।

‌মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসা‌মিরা হ‌লেন- জাহাঙ্গীর হোসেন ওরফে রাজীব গান্ধী, আসলাম হোসেন ওরফে র‌্যাশ, আব্দুস সবুর খান, রাকিবুল হাসান রিগ্যান, হাদিসুর রহমান, শরিফুল ইসলাম ওরফে খালেদ ও মামুনুর রশিদ। খালাস পেয়েছেন মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজান।

এ রায়ে আদালতের কী পর্যালোচনা ছিল? এমন প্রশ্নের জবাবে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী দলের সদস্য অ্যাডভোকেট মো. কাওসার আহমেদ বলেন, আদালত তার পর্যালোচনায় বলেন যে, এই অপরাধ সংগঠনে আসামিদের ‘কমন ইন্টেনশন’ ছিল, আর সেটি হচ্ছে বাংলাদেশের মতো একটি স্থিতিশীল রাষ্ট্রকে আইএসের আদলে অস্থিতিশীল রাষ্ট্রে পরিণত করা। দেশের পেনাল কোড অনুযায়ী ও এটি অপরাধ।