এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ধর্ষণ: সাইফুর-অর্জুন পাঁচ দিনের রিমান্ডে

সিলেটের এমসি (মুরারিচাঁদ) কলেজের ছাত্রাবাসে গৃহবধূ সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় ছাত্রলীগ কর্মী সাইফুর রহমান ও অর্জুন লস্করের ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। সোমবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সিলেট মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রট দ্বিতীয় আদালতের বিচারক সাইফুর রহমান তাদের এই রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে সোমবার বেলা ১১টা থেকে আদালত এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পুলিশি পাহারার প্রিজন ভ্যানে করে বেলা ১১টা ৪০ মিনিটে সাইফুর ও অর্জুনকে আদালতে নিয়ে আসা হয়। এরপর দুপুর ১২টার দিকে আদালত এই আদেশ দেন।

আদালতে সাইফুর রহমান, অর্জুন লস্করকে হাজির করে ধর্ষণ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শাহপরাণ থানার ওসি (তদন্ত) ইন্দ্রনীল ভট্টাচার্য ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। শুনানি শেষে বিচারক ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে।

প্রসঙ্গত, স্বামীর সাথে বেড়াতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার হয় এক গৃহবধূ। ক্যাম্পাস রোডে শুক্রবার বিকেলে ঘুরতে যান স্বামী-স্ত্রী দুজন। অভিযোগ, এ সময় ৫-৬ জন তাদের তুলে সিলেট এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে নিয়ে যায়। এরপর স্বামীকে একটি কক্ষে আটকে রেখে স্ত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করে তারা। এ ঘটনায় ভুক্তভোগির স্বামী বাদি হয়ে শাহপরান থানায় মামলা দায়ের করেন। যেখানে আসামি ছাত্রলীগ কর্মী সাইফুর রহমান, মাহফুজুর রহমান, শাহ মাহবুবুর রহমান মনি, অর্জুন শস্কর, বহিরাগত রবিউল ও তারেক। এছাড়াও অজ্ঞাত আরও তিন জন।