এপ্রিল মাস আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জের: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘করোনাভাইরাসের বিষয়ে সবাই সচেতন হলে আমরা এ থেকে মুক্ত থাকব। এপ্রিল মাসটা আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জের। এ মাসটা একটু কষ্ট করলে আমরা করোনা নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারব।’ প্রধানমন্ত্রী আজ সোমবার সকাল ১০টায় গণভবন থেকে ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগের বিভিন্ন জেলার কর্মকর্তাদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে এসব কথা বলেন।

এ সময় খাদ্য উৎপাদন বাড়াতে প্রধানমন্ত্রী সবার প্রতি আহ্বান জানান। তিনি বলেন, ‘এতে গোটা বিশ্বে খাদ্যের অভাব দেখা দিলেও আমাদের এখানে তা দেখা দেবে না।’

ঢাকা বিভাগের কিশোরগঞ্জ, টাঙ্গাইল, গাজীপুর ও মানিকগঞ্জ জেলা এবং ময়মনসিংহ বিভাগের জেলাগুলোর সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সারা বিশ্ব এ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। পবিত্র মক্কায় কাবাঘরে, মদিনা শরিফে ইবাদত বন্দেগি হচ্ছে না। করোনার কারণে ৭ মার্চ, ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠান, ২৬ মার্চ, পয়লা বৈশাখ, ১৭ এপ্রিলসহ জাতীয় সব অনুষ্ঠান স্থগিত রাখা হয়েছে। এগুলো করা হয়েছে যাতে লোকসমাগম না হয়। মানুষ যাতে করোনায় আক্রান্ত না হয়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘করোনার কবল থেকে মানুষকে মুক্ত রাখতে সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। সবাইকে ঘরে থেকে পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে হবে।’

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, প্রায় ১৪ লাখ পিপিই সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১০ লাখের মতো বিতরণ করা হয়েছে। হাতে আছে তিন লাখের মতো। ডাক্তার ছাড়া অন্য কেউ এগুলো ব্যবহার না করলে ভালো হয়। তিনি বলেন, ‘সবাই একটু সচেতন হলে করোনায় আমরা ভালো থাকব।’