উল্লাপাড়ায় মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ

মোঃ আলমগীর হোসেন, উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় ৮ম শ্রেণির এক মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষনের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে ভুক্তভোগীর পরিবার।

এ ব্যাপারে রোববার রাতে শিক্ষার্থীর মা বাদি হয়ে উল্লাপাড়া মডেল থানায় ৫ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

আসামীরা হলেন, উপজেলার বাঙ্গালা ইউনিয়নের গাড়াবাড়ি গ্রামের রেজাউল করিমের ছেলে ধর্ষক নাঈম খান (১৬),

একই গ্রামের মোকবেল হোসেনের ছেলে মোঃ রেজাউল করিম (৫০), রেজাউল করিমের স্ত্রী মোছাঃ নাজমা খাতুন (৪৫),

শুকুর মাহমুদের ছেলে মোঃ আলী আহম্মেদ (১৮) ও মোঃ রেজাউল করিমের ছেলে মোঃ নাসির উদ্দিন (২৫)।

উল্লাপাড়া মডেল থানার উপ পরিদর্শক ও এই মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা আলাল হোসেন জানান,

উক্ত মাদ্রাসা ছাত্রীকে গাড়াবাড়ি গ্রামের মোঃ রেজাউল করিমের ছেলে মোঃ নাঈম খান স্কুলে যাবার পথে দীর্ঘদিন ধরে উত্ত্যক্ত করত।

অনেকদিন তাকে প্রেমের প্রস্তাবও দেয় নাঈম। এতে রাজি না হওয়ায় ছাত্রীর উপর ক্ষুব্ধ হয় নাঈম খান।

কয়েকদিন আগে ওই মাদ্রাসা ছাত্রীর মা ও বাবা তাদের আত্মীয় বাড়িতে বেড়াতে গেলে নাঈম রাত ১১ টার দিকে

ছাত্রীর বাড়িতে ঢুকে তাকে জোড়পূর্বক ধর্ষন করে। ধর্ষক বের হয়ে যাবার সময় জাপটে ধরে চিৎকার শুরু করে ওই ছাত্রী।

এসময় পার্শ্ববর্তী বাড়ির লোকজন নাঈমকে আটক করে। পরে নাঈমের সঙ্গীরা উপযুক্ত বিচার দেবার কথা বলে তাকে ছাড়িয়ে নেয়।

কিন্তু কোন বিচার দিতে পারেনি ধর্ষকের লোকজন। এ অবস্থায় রোববার ধর্ষিতা ছাত্রীর মা উল্লাপাড়া থানায় বাদি হয়ে

উল্লিখিত ব্যক্তিদের নামে ধর্ষন মামলা দায়ের করেন। পুলিশ ইতোমধ্যেই ধর্ষিতার ডাক্তারি পরীক্ষা শেষ করেছে।

ধর্ষক ও তার সঙ্গীরা পালিয়ে থাকায় এখনও তাদের গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি। তবে পুলিশ এদেরকে ধরার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।