উলিপুরে বিয়ের প্রলোভনে ছাত্রীকে ৬মাস ধর্ষণ!থানায় অভিযোগ করেও ঘরছাড়া পরিবার।

মজাহারুল ইসলাম মিলন, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:  কুড়িগ্রামের উলিপুরে বিয়ের প্রলোভনে এক মাদরাসা ছাত্রীকে ৬মাস ধরে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ করেও ঘর ছাড়া ভুক্তভোগী ছাত্রী ও তার পরিবার। জানা গেছে, উপজেলার দূর্গাপুর ইউনিয়নের লালখারটারী এলাকার কামাল খামার দাখিল মাদ্রাসার দশম শ্রেনীর জনৈক এক মেধাবী ছাত্রীর সাথে দূর্গাপুর ইউনিয়নের জানজাগির এলাকার মোঃ আহসান হাবীব বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গত ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইং ওই ছাত্রীকে নিয়ে রংপুরে ১ মাস বাসা ভাড়া নিয়ে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে।
এরপর বাড়িতে ফিরে বিবাহ করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রতারনামুলক ভাবে ৫/৬ মাস ধরে আহসান হাবীব তার নিজস্ব জানজাগির বাজারের গুদাম ঘরে ধর্ষন ও নির্যাতন করার অভিযোগ উঠেছে। দিনের পর দিন নির্যাতন সইতে না পেরে ওই ছাত্রী তার বাবার বাড়ীতে চলে যান। আহসান হাবীবের হুমকির ভয়ে ওই ছাত্র ও তার পরিবার অন্যত্র পালিয়ে বেড়াচ্ছে।
এ ঘটনায় গত ১০ই জুন থানায় লিখিত অভিযোগ দেন ভূক্তভোগী ছাত্রী। স্থানীয়রা জানায়, অভিযুক্ত আহসান হাবীব মিঠুর পূর্বের স্ত্রী রয়েছে। এবং সে দুই সন্তানের জনক।আহসান হাবীব মিঠুর ওই মেয়েটিকে দোকানের গুদামে বিবাহিত পরিচয়ে জীবন যাপন করতে দেখেছেন স্থানীয়রা।তার এমন কর্মকান্ডে এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। অভিযুক্ত আহসান হাবীব মিঠু’র সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে, সে ওই ছাত্রীর সাথে ঘর সংসার করার কথা স্বীকার করেন।
এ ব্যাপারে ডিউটি অফিসার মোঃ লুলু মিয়া অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করে জানান,অভিযোগটি ওসি স্যারকে দেওয়া হয়েছে।