ঈদ শপিংয়ে রায়পুরে চলছে চোর-পুলিশ খেলা,ফের লকডাউন

নুরুল আমিন দুলাল ভূইয়া,  লক্ষ্মীপুর জেলা প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলায় ঈদের কেনাকাটায় স্বাস্থবিধি মানা হচ্ছে না। এতে করোনা প্রাদুর্ভাব বৃদ্ধির আশঙ্কায় পুনরায় অনির্দিষ্টকালের জন্য রায়পুরকে লকডাউন ঘোষণা করেছে উপজেলা প্রশাসন।গত মঙ্গলবার (১২ মে) থেকে পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দোকান ছাড়া পোশাকবিতানসহ বাকি সব ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। এদিকে রায়পুর বাজারের সব চেয়ে বড় গাজী সুপার মার্কেটের ব্যাবসায়ীরা দোকানের সাটার অর্ধেক খোলা রেখে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্চেন। পুলিশের উপস্হিতী টের পাইলে দোকান বন্ধ করে দেয়া হয়, আবার পুলিশ চলেগেলে দোকান খোলা হয়। মার্কেটে গার্মেন্টস এর দোকান গুলিতে প্রচন্ড ক্রেতা সমাগম হওয়াতে করোনা ভাইরাসের ঝুঁকির মধ্যে আছে রায়পুর উপজেলা।

এদিকে লক্ষ্মীপুর সিভিল সার্জেন ও রায়পুর প্রশাসনের তথ্যমতে রায়পুরে একই বাড়ীর ১৫ জন সহ সর্বমোট ২১ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত। রায়পুর উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায় সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী লকডাউন শেষে ১০ মে রায়পুর উপজেলা শহরের প্রত্যেকটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান খোলা হয়। ঈদের কেনাকাটার জন্য উপজেলা শহর ও প্রত্যন্ত এলাকা থেকে ক্রেতারা বাজারে আসতে থাকেন । কিন্তু কেউই স্বাস্থবিধি মেনে কেনাকাটা করছেন না। গায়ে গা লাগিয়ে দোকানের ভেতর জটলা সৃষ্টি করে বেচাকেনায় ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন ক্রেতা-বিক্রেতারা। এরই ধারাবাহিকতায় রায়পুরে পূনরায় লকডাউন ঘোষনা করা হয়।