ঈদ পর্যন্ত রাজশাহী মহানগরীর সকল মার্কেট বন্ধের সিদ্ধান্ত

সৈয়দ মাসুদ, রাজশাহী প্রতিনিধি: করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ বিস্তার রোধে ও জনস্বার্থে আগামী ঈদ পর্যন্ত রাজশাহী মহানগরীর সকল মার্কেট ও বিপণী বিতানসূমহ বন্ধের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। আজ শুক্রবার ভবনে মেয়র দপ্তরকক্ষে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন ও রাজশাহী-২ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশার সাথে চেম্বার অব কর্মাস ও ব্যবসায়িক নেতৃবৃন্দের এক বৈঠকে সবার সম্মতিক্রমে সম্মিলিতভাবে এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। সভায় মার্কেটের দোকান কর্মচারীদের সহায়তা প্রদানের বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন রাসিকের প্যানেল মেয়র-১ ও ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সরিফুল ইসলাম বাবু, রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স এ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মোঃ মনিরুজ্জামান মনি, আরডিএ মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ মাদুদ হাসান, রাজশাহী ব্যবসায়ী সমন্বয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সেকেন্দার আলী, নিউ মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি নূরুন নবী, কাপড়পট্টি মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মোঃ শামীম, বিনোদপুর বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি শহীদুল ইসলাম শহিদ, হড়গ্রাম মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন, পাদুকা ব্যবসায়ী সমিতির সহ-সভাপতি আবুল কাশেম, স্বর্ণ জুয়েলাস ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আসলাম উদ্দিন সরকার প্রমুখ।

এরআগে মহানগরীকে করোনামুক্ত রাখতে গতকাল বৃহস্পতিবার রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে নগর ভবনের সিটি হল সভাকক্ষে সরকারি কর্মকর্তা, চেম্বার অব কর্মাস, ব্যবসায়িক নেতৃবৃন্দ ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মালিকদের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন মাননীয় সিটি মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী-২ (সদর) আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা, রাজশাহীর অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার এ.এন.এম মঈনুল ইসলাম, রাজশাহী জেলা প্রশাসক মোঃ হামিদুল হক, আরএঈদ পর্যন্ত রাজশাহী মহানগরীর
সকল মার্কেট বন্ধের সিদ্ধান্ত

করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ বিস্তার রোধে ও জনস্বার্থে আগামী ঈদ পর্যন্ত রাজশাহী মহানগরীর সকল মার্কেট ও বিপণী বিতানসূমহ বন্ধের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। আজ শুক্রবার ভবনে মেয়র দপ্তরকক্ষে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন ও রাজশাহী-২ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশার সাথে চেম্বার অব কর্মাস ও ব্যবসায়িক নেতৃবৃন্দের এক বৈঠকে সবার সম্মতিক্রমে সম্মিলিতভাবে এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। সভায় মার্কেটের দোকান কর্মচারীদের সহায়তা প্রদানের বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন রাসিকের প্যানেল মেয়র-১ ও ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সরিফুল ইসলাম বাবু, রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স এ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মোঃ মনিরুজ্জামান মনি, আরডিএ মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ মাদুদ হাসান, রাজশাহী ব্যবসায়ী সমন্বয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সেকেন্দার আলী, নিউ মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি নূরুন নবী, কাপড়পট্টি মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মোঃ শামীম, বিনোদপুর বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি শহীদুল ইসলাম শহিদ, হড়গ্রাম মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন, পাদুকা ব্যবসায়ী সমিতির সহ-সভাপতি আবুল কাশেম, স্বর্ণ জুয়েলাস ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আসলাম উদ্দিন সরকার প্রমুখ।
এরআগে মহানগরীকে করোনামুক্ত রাখতে গতকাল বৃহস্পতিবার রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে নগর ভবনের সিটি হল সভাকক্ষে সরকারি কর্মকর্তা, চেম্বার অব কর্মাস, ব্যবসায়িক নেতৃবৃন্দ ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মালিকদের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন মাননীয় সিটি মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী-২ (সদর) আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা, রাজশাহীর অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার এ.এন.এম মঈনুল ইসলাম, রাজশাহী জেলা প্রশাসক মোঃ হামিদুল হক, আরএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মোঃ সুজায়েত ইসলাম, রাসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. এবিএম শরীফ উদ্দিন, রাজশাহী বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. গোপেন্দ্র নাথ আচার্য, রাজশাহী মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. প্রফেসর নওশাদ আলী, উপাধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. বুলবুল হাসান, রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স এ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি মোঃ মনিরুজ্জামান মনিসহ বিভিন্ন মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃবৃন্দ। সভায় চূড়ান্ত কোন সিদ্ধান্ত না হওয়ায় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা থেকে সাড়ে ৯টা পর্যন্ত নগর ভবনে মেয়র দপ্তরকক্ষে দ্বিতীয় দফায় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানেও সিদ্ধান্ত না আসায় পরবর্তীতে তৃতীয় দফায় শুক্রবার বিকেলে আয়োজিত সভায় মার্কেট বন্ধের চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হলো।