ইরাকের মার্কিন ঘাটিতে ইরানের ক্ষেপনাস্ত্র হামলা

ইরাকে অবস্থিত মার্কিন ঘাটিতে ইরানের ক্ষেপনাস্ত্র হামলায় আহত হয়েছে অন্তত ৩৪ সেনাসদস্য এমনটাই জানিয়েছে মার্কিন সামরিক সদর দপ্তর পেন্টাগন। খবর বিবিসি’র।
পেন্টাগনের এক মুখপাত্র বলেন, হামলায় আমাদের ৩৪ জন সেনাসদস্য মাথায় আঘাত পেয়ে আহত হয়েছেন। এরমাঝে ১৭ সেনা এখনও চিকিৎসাধীন আছেন। চিকিৎসকরা তাদের সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন।
গত ৩ জানুয়ারি ইরাকের রাজধানী বাগদাদের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ড্রোন হামলা চালিয়ে ইরানের বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর কুদস ফোর্সের প্রধান জেনারেল কাসেম সোলেইমানিকে হত্যা করা হয়। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশেই ওই হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়েছে।
এর জবাব হিসেবে গত ৮ জানুয়ারি ইরাকে অবস্থিত দুটি মার্কিন সামরিক ঘাঁটিতে এক ডজনের বেশি ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় ইরান। সে সময় প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প দাবি করেছিলেন যে, এসব হামলায় কোনো আমেরিকান আহত হয়নি।
শুক্রবার প্রতিরক্ষা বিভাগের মুখপাত্র জোনাথন হোফম্যান বলেন, আঘাতপ্রাপ্ত সেনাদের মধ্যে আটজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে ফেরত পাঠানো হয়েছে। এছাড়া আরও নয়জন জার্মানিতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। অপরদিকে ইরাকে ১৬ সেনা এবং কুয়েতে এক সেনা চিকিৎসা নিয়েছেন। এই ১৭ জন চিকিৎসা শেষে স্বাভাবিক কাজে ফিরেছেন বলে কর্মকর্তারা নিশ্চিত করেছেন।