ইউল্যাব শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের আলামত মেলেনি; ৫ দিনের রিমান্ডে দুই বন্ধু

রাজধানীর মোহাম্মদপুরে ইউল্যাব শিক্ষার্থী ধর্ষণ-হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার দুই বন্ধুকে ৫ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। ৫ আসামির মধ্যে গতকাল হাসপাতালে মারা গেছে একজন। ময়নাতদন্তের পর চিকিৎসক জানিয়েছেন, ধর্ষণের আলামত মেলেনি। পুলিশের ধারণা, মাদক সেবন ঘিরেই পুরো ঘটনা।
রাজধানীর কলাবাগানে শিক্ষার্থী ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনার রেশ না কাটতেই এবার একইরকম ঘটনায় ইউল্যাব বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীর মৃত্যুর অভিযোগ।
নিহতের বাবার করা মামলায় বলা হয়েছে, গত বৃহস্পতিবার রাতে কয়েকজন বন্ধুর সাথে রাজধানীর উত্তরার একটি রেস্টুরেন্টে যান তার মেয়ে। পরে মোহাম্মদপুরে এক বান্ধবীর বাসায় নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে প্রধান আসামি রায়হান। এতে অসুস্থ হয়ে পড়লে ওই শিক্ষার্থীকে হাসপাতালে নেয়া হয়।
রোববার সকালে আনোয়ার খান মর্ডান হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ওই ছাত্রী। এরই মাঝে মারা গেছে আসামি আরাফাত। গ্রেপ্তার ২ জন ৫ দিনের রিমান্ডে।
পুলিশের ধারণা, মাদকে ও ধর্ষণের কারণে ওই শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। আর অপর আসামী আরাফাতও মারা গেছে মাদক সেবনের কারণে। তবে সরাওয়াদী হাসপাতালের ফরেনসিক প্রধান বলছেন, ময়না তদন্তে ধর্ষণের কোন আলামত পাওয়া যায়নি। তবে শারিরিক সম্পর্ক হয়েছিলো এছাড়া মাদকে সেবনের প্রাথমিক প্রমান মিলেছে।
এদিকে ময়না তদন্ত শেষে ঝিনায়দাহের শৌলকুপায় নিহত মেয়ে মরদেহ দাফন করা হয়েছে।