ইউপি সদস্য’র বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড, চাঁদাবাজীসহ বিভিন্ন অভিযোগ

বিশেষ প্রতিবেদন, মো:হাচিবুর রহমান কালিয়া (নড়াইল) প্রতিনিধি : নড়াইলের কালিয়া উপজেলার বাঐসোনা ইউপি সদস্য রকিত শেখের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড, চাদাবাজী, ডাকাতিসহ বিভিন্ন অভিযোগ উঠেছে। তার বিরুদ্ধে থানায় একাধীক মামলাসহ প্রধানমন্ত্রী বরাবর আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহনের আবেদন জানিয়েছে ভুক্তভোগিরা।
মাত্র কয়েক বছর আগেও রকিত শেখ যুক্ত ছিলেন বিএপির রাজনীতির সাথে। ২০০৮ সালে সুচতুর রকিত শেখ দলবদল করে আওয়ামীলীগে যোগদান করেন। এরপর সক্ষতা গড়ে তোলেন এলাকার এমপি, উপজেলা চেয়ারম্যান, সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যানের সাথে। সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে তিনি এলাকায় প্রভাব বিস্তার করতে থাকেন। অপরদিকে তার মদদে ভাই কাবুল শেখ ব্রাক এনজিও থেকে লোন এনে সেই টাকা দিয়ে এলাকায় সুদের কারবার চালিয়ে যাচ্ছেন।
এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগীরা জানান, তাদের ভয়ে অনেকেই মুখ খুলতে সাহস পান না। অনেকেই বর্তমানে এলাকা ছাড়া হয়েছেন তাদের অত্যাচারে। এলাকার কেউ তাদের অন্যায়ের প্রতিবাদ করলে তাদের উপর নেমে আসে রকিত বাহিনীর অত্যাচার ও নির্মম নির্যাতন। হাত-পা ভেঙ্গে দেওয়াসহ ভিটে বাড়ী থেকে উচ্ছেদের ঘটনাও ঘটেছে ওই এলাকায়। সুদের টাকার ভয়ে অনেকে বর্তমানে পৈত্রিক বাড়ী ছেড়ে এখন নিরুদ্দেশ রয়েছেন।

সম্প্রতি অষ্টিয়া আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি শেখ শামসুর রহমানের কাছে ১০ লক্ষ টাকা চাদা দাবী করে রকিত বাহিনী। চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে তারা বিভিন্ন ভাবে তাকে অত্যাচার করছে, তারা তার বাড়ীতে ঢুকে ডাকাতি, মারধোর ও বাড়ি ভাংচুর করেছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

রকিত শেখের ভাই কাবুল শেখ ব্রাক এনজিও থেকে লোন এনে সেই টাকা দিয়ে এলাকায় শাপলা সমবায় সমিতি নামে সুদের কারবার করেন। সমবায় সমিতি থেকে রেজিট্রেশন করেছেন দাবী করলেও তিনি কোন কাগজ পত্র দেখাতে পারেননি। নেই কোন নিজস্ব কার্যালয়।

এ ব্যাপারে রকিত শেখ বলেন, আমি বিএনপি সেক্রেটারি ছিলাম অনেক আগে, এখন আমি আওয়ামীলীগের দল করি, সেই ভাবে চলি।

এ ব্যাপারে নড়াইল জেলার পুলিশ সুপার মো: জসিম উদ্দিন বলেন, বিজ্ঞ আদালতে জনৈক অষ্ট্রিয়া প্রবাসী শেখ শামসুর রহমান বাদী হয়ে রকিত শেখ, শাহানুর শেখ, বাবুল শেখ গংসহ আরো কয়েকজনের নামে মামলা দিয়েছেন। এই বিষয়ে আমি নড়াগাতি থানার ওসি সাহেবের সাথে কথা বলেছি।

আমরা আইনগত জায়গা গুলি দেখবো, তাদের সংশ্লিষ্টতা আমরা তদন্ত করে দেখবো এবং সেটা যথাযথ আইনগত ব্যাবস্থা আমরা গ্রহন করবো।

এলাকার শান্তি শৃংখলা রক্ষা করতে ইউপি সদস্য রকিত শেখ ও তার দোসরদের আইনের আওতায় আনতে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়ার দাবী জানিয়েছেন এলাকাবাসী।