আশুগঞ্জে এক ব্যক্তির রহস্যজনক মৃত্যু

বাবুল সিকদার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রতিনিধি: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মো. আনন মিয়া (৪৫) নামে এক ব্যক্তির রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে।

সোমবার (৪ মে) রাতে উপজেলার আড়াইসিধা ইউনিয়নের আকবর বাড়ির তোফাজ্জল ভান্ডারী (পাডা ফকির) এর বাড়ি থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আনন মিয়া জেলা শহরের উলচাপাড়া এলাকার মকসুদ মিয়ার ছেলে। সে পেশায় একজন কৃষক।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শরীরা জানান, গত ২ মে শনিবার সকালে জেলা শহরের নিহ বাড়ি থেকে বের হয়ে আসেন আনন মিয়া। পরে এদিনই রাতে তার পীর ভাই তোফাজ্জল ভান্ডারী (পাডা ফকির) এর বাড়িতে আসেন সে। পরদিন রোববার দিবাগত রাতে খাবার খাওয়ার পর তিনি সেই বাড়িতেই রাতে ঘুমাতে যান। পরে রাত ১ টার সময় সে অসুস্থ হয়ে প্রচন্ড বমি করতে থাকেন। সাথে বুকে ব্যাথা অনুভব করেন। এসময় তোফাজ্জল ভান্ডারী ও এলাই মিয়া তাকে ডাক্তারের কাছেও নেননি। পরে রাত সাড়ে তিনটার দিকে তার মৃত্যু হয়। এই ঘটনার পর রাতে কিংবা সকালেও তারা কাউকে বিষয়টি বলেন নি। বিকালে এলাকাবাসী জানতে পেরে পুলিশকে জানান। রাতে পুলিশ তোফাজ্জল ভান্ডারী (পাডা ফকির) এর বাড়িতে গিয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

নিহতের ছেলে মো. যুবায়ের মিয়া জানান, আমার বাবা ২ মে বাড়ি থেকে বের হয়ে আসেন। আজ দুপুরে বাবার মৃত্যুর খবর পেয়ে আমরা ছুটে আসি। আমার বাবার মৃত্যুর বিষয়ে মামলা করব কিনা তা পরিবারের লোকজনের সাথে কথা বলে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জাবেদ মাহমুদ জানান, নিহতের মৃত্যুর বিষয়টি জানতে পেরে আমরা ঘটনাস্থলে ছুটে যাই। নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলে মত্যুর সঠিক কারন জানা যাবে।