আশুগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

বাবুল শিকদার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলার চর চারতলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী মো.জিয়াউদ্দিন খন্দকারের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন অণূষ্ঠিত হয়েছে।

রবিবার (৬ ডিসেম্বর) সকালে আশুগঞ্জ প্রেসক্লাবের নাসির আহমেদ সম্মেলন কক্ষে উপজেলা যুবলীগের পক্ষ থেকে এই সংবাদ সম্মেলন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন উপজেলা যুবলীগ নেতা মো. হাসানুজ্জামান হাসান। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন,৪ ডিসেম্বর চর চারতলা ইউনিয়নের কালা মিয়া (৫২) নামে এক ব্যক্তি ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন।

তার বাড়ির সামনে ঠিকাদারের লোকজন এলজিইডি রাস্তায় ঢালাই কাজ করছিল। ইউপি,চেয়ারম্যান জিয়াউদ্দিন খন্দকার লাশ আসার জন্য কিছু সময় কাজ বন্ধ রাখার জন্য ঠিকাদারের লোকজনকে অনুরোধ করেন। কিন্তু দুপুরে লাশ নিয়ে আসার পরও তারা কাজ করে যাচ্ছিল। এসময় লাশ নিয়ে বাড়িতে যায়তে সমস্যায় পড়েন নিহতের স্বজনরা। পরিবারের পক্ষ থেকে বিষয়টি চেযারম্যানকে জাননো হলে তিনি সরেজমিনে সেখানে উপস্থিত হয়ে আবারো কাজ বন্ধ রাখার জন্য অনুরোধ করেন।

এরপরেও তারা কাজ করে যাওয়ায় চেয়ারম্যান তাদের ধমক দেন। পরে ইউপি সদস্যদের সাথে ঠিকাদারের লোকজনের বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে ধাক্কাধাক্কি হয়। এসময় এলজিইডি অফিসের কার্য সহকারীর সাথে কোন ঝামেলাই হয়নি। লিখিত বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, কিছুদিন আগে চর চারতলার এই রাস্তার ঢালাই কাজের অনিয়ম নিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর ইউপি চেয়ারম্যান জিয়াউদ্দিন খন্দকার লিখত অভিযোগ করেন।

এই অভিযোগের কারনে ক্ষিপ্ত হয়ে ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে এই মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়। অবিলম্বে এই মামলা প্রত্যাহার করে না নিলে সকল জনগণকে সাথে নিয়ে বৃহত্তর আন্দোলনে যেতে বাধ্য হবেন বলেও জানান তিনি। এসময় উপজেলা শ্রমিকলেিগর সভাপতি আবু মুছা, সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন মুন্সি, চরচারতলা ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি শফিকুল ইসলাম খোকা,ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল খন্দকার, লালপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি স্বপন মিয়া,

সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, তালশহর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি তফসিরুল আলম, দূর্গাপুর ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল,শরীফপুরের সভাপতি ইয়াসিন বকশি,তারুয়া ইউনিয়নের সভাপতি শাহ রোবন, উপজেলা যুবলীগ নেতা এ.কে.এম রাশেদুজ্জামান রনিসহ স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এই বিষয়ে আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাবেদ মাহমুদ জানান, সরকারী কাজে বাধাঁ ও সরকারী কর্মচারীকে মারধরের অভিযোগে উপজেলা এলজিইডি অফিসের কার্য সহকারী শাহাদত হোসেন শামীম বাদি হয়ে মামলাটি দায়ের করেছেন বর্তমানে মামলাটির তদন্ত চলমান রয়েছে।