আল জাজিরার রিপোর্টে মালয়েশিয়ায় তোলপাড়, ক্ষমা চাওয়ার আহবান

আশরাফুল মামুন ,মালয়েশিয়া প্রতিনিধি: মালয়েশিয়ায় বসবাসরত বৈধ ও অবৈধ অভিবাসীদের প্রতি লকডাউন চলাকালীন দেশটির সরকারের বৈষম্য মূলক আচরণ করেছে এবং তাদের মারধর সহ নারী বন্দীদের তাদের শিশুদের আলাদা করেছে বলে আন্তর্জাতিক গনমাধ্যম আল জাজিরা টেলিভিশন এর এমন প্রতিবেদনে ক্ষেপেছে সরকার। এমন তথ্য ভিত্তিহীন দাবি করে আল জাজিরা টেলিভিশন কে মালয়েশিয়া জনগণের কাছে ক্ষমা চাওয়ার আহবান জানিয়েছেন দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রী দাতো সেরী ইসমাইল সাবরি ইয়াকুব।

সোমবার (৬ ই জুলাই) রিকভারি মুভমেন্ট কন্ট্রোল অর্ডার (আরএমসিও) এর একটি সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

সম্প্রতি আল জাজিরা টেলিভিশনে ৩০ মিনিট থেকে ৫০ মিনিটের একটি ডকুমেন্টারি প্রচারিত হয়েছে এবং এই প্রতিবেদনটি তে দাবি করা হয়েছে মালয়েশিয়ায় বসবাসরত অভিবাসীদের প্রতি লকডাউন চলাকালীন সময়ে বৈষম্য মূলক আচরণ করা হয়েছে। কর্মহীন ও খাদ্য সংকটে থাকা অভিবাসী শ্রমিকদের মানবাধিকার লঙ্ঘন করে তাদের বসত ঘর থেকে গ্রেফতার করে তাদের ডিটেনশন ক্যাম্পে বন্দী রেখে বৈষম্য মূলক আচরণ করেছে এমন কি আটক নারী অভিবাসীদের তাদের ছোট ছোট শিশুদের আলাদা করে রেখেছে এবং তাদের মারধর করা হয়েছে ।

এ প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, এসব তথ্য উপাত্ত ও অভিযোগ গুলো ভিত্তিহীন সত্য তা যচাই না করেই যে সাংবাদিক এই ডকুমেন্টারি তৈরি করেছেন তিনি অনৈতিক কাজ করেছেন। তাদের মালয়েশিয়ার জনগণের কাছে ক্ষমা চাইতে বলা হচ্ছে এবং যে ডকুমেন্টারি টি প্রচারিত হয়েছে সেটা প্রত্যাহার করে নিতে বলা হয়েছে। তিনি বলেন প্রতিবেদনটিতে যে বলা হয়েছে শিশুদের তাদের মা এর কাছ থেকে থেকে কেড়ে নিয়ে অমানবিক নিষ্ঠুর আচরণ করা হয়েছে এসব ভিত্তিহীন। বাস্তবতা হলো শিশুদের আলাদা করার পর তাদের মায়েদের কাছেই রাখা হয়েছে। ইসমাইল সাবরি আরও বলেন যে অবৈধ অভিবাসীদের বিরুদ্ধে অভিবাসন আটক ব্যবস্থাটি ইমিগ্রেশন আইনের ভিত্তিতে করা হয়েছে যা আইনী দলিলবিহীন ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারের অনুমতি দেওয়া হয়েছিল এবং এটি অন্যান্য দেশে এই আইন অনুসারেই করা হয়ে থাকে।

এদিকে আজ সোমবার সকালে পোর্ট ক্লাং এ স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের সাথে মতবিনিময়ের সময় মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী দাতো সেরী হামজা জয়নুদ্দিন আজ সোমবার সকালে আল জাজিরার রিপোর্ট বিষয়ে বলেন, আমরা বিদেশি ডকুমেন্টারী নিয়ে মাথা ঘামাই না তারা কি বললো আমাদের যায় আসে না। আমরা এ দেশের জনগের জন্য কাজ করি তারা সেটা কিভাবে চায় আমরা সেটা গুরুত্ব দেই। এসময় তিনি আরো বলেন বিদেশী শ্রমিক আমাদের প্রয়োজন আছে তবে অবৈধ ও অনিবন্ধিত কোন শ্রমিক নয়। আর দেশটিতে যারা আছেন মালয়েশিয়ান সহ অন্যরা আইন মানছেন কি না আমরা সেভাবে তাদের পরিচালনা করি এটা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

বার্তা প্রেরক-