আনোয়ারায় জোর পূর্বক বিধবা মহিলার ঘর দখল,ঘর-বাড়ি ভাঙচুর

 রুপন দত্ত, আনোয়ারা প্রতিনিধি: চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার বৈরাগ ইউনিয়নের মুহাম্মদপুর গ্রামের বিধবা,বৃদ্ধা মহিলা সামশুন্নাহার আজিম (৬২) সরকারি খাস জমি ৯৯ বছরের জন্য বন্দোবস্ত নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন।

তার দখলকৃত সরকারি খাসজমি একই এলাকার কয়েকজন ব্যক্তির বিরুদ্ধে জোর পূর্বক দখল ও ঘর-বাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে। গত ২৫ ডিসেম্বর ২০২০ইং বিকাল সাড়ে ৩টায় উপজেলার বৈরাগ ইউনিয়নের মুহাম্মদপুর গ্রামের রাশেদুল হক (২৮),সামশুল হক (৪৮) ও চাতরী ইউনিয়নের মোহাম্মদ আনিছ(২০) এবং অজ্ঞাতনামা ১০-১২ জন সন্ত্রাসী বিধবা শামসুন্নাহারের দখলি বসতঘরে হামলা চালায়।

এতে ঘরে থাকা বাড়াটিদের টেনে হিঁছড়ে ঘর থেকে বের করে কিল,ঘুষি ও লাতি মেরে শারীরিক নির্যাতন করে।এছাড়া ঘরের দরজা,দেওয়াল ও টিনের ঘর ভেঙে তছনছ করে দেয়। বাদী শামসুন্নাহারের জানান, একদল সন্ত্রাসী জোর পূর্বক আমার বসতঘরে হামলা চালায় ঘরে রক্ষিত বাড়াটির অত্যাচর ও নির্যাতন করে।

এছাড়া ঘরে রক্ষিত ১ ভরি ৪ আনা স্বর্ণালংকার ও মেয়ের বিয়ের জন্য রাখা নগদ ১,৮০,০০০ (এক লক্ষ আশি হাজার) টাকা ছিনিয়ে নেয় এই ঘটনার একদিন না হতে আবারও হামলা করে তাদের গৃহহীণ করে।বর্তমানে তারা মানবতার জীবন-যাপন করছে।

সূত্রে জানা যায়,১৯৯৯ সালে বৈরাগ মৌজায় ২৭৫ নং সিরিয়ালে আরএস ২৯৭৪ ও ২৭৫৩ দাগের ৯একর খাস কৃষি জমি ৯৯ বছরের বন্দোবস্ত নেন বিধবার স্বামী আনোয়ারুল আজিম।উক্ত জমি ২০ বছরের অধিক সময় ধরে ভোগ দখল করছিলেন তিনি।

তার দখলি ঘরে দীর্ঘদিন ভাড়াটিয়া স্বপরিবারে বসবাস করে আসছিলেন।বিধবার ছেলে সন্তান না থাকায় অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে দখল স্বত্ত বিক্রির নাদাবী পত্র দেখিয়ে জোর পূর্বক দখল করছে কিছু সন্ত্রাসীরা। আনোয়ারা থানার (ওসি) এস এম দিদারুল ইসলাম সিকদার জানান,এই ঘটনায় থানা একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।