আজ গণতন্ত্রের বিজয় দিবস পালন করবে আওয়ামী লীগ।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রথম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে সোমবার (৩০ ডিসেম্বর) গণতন্ত্রের বিজয় দিবস পালন করবে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ।

রোববার রাতে দলটির দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ উপলক্ষে কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২০১৮ সালের এই দিনে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে বিজয় লাভ করে আওয়ামী লীগ। বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় অগ্রসরমান সমৃদ্ধ বাংলাদেশের পক্ষে গণরায় প্রদান করে বাংলার জনগণ। জনগণের রায়ে অশুভ শক্তি দুর্নীতি-সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের পৃষ্ঠপোষকদের আস্ফালন আর সহিংস রাজনীতির অন্ধকার ছায়া কাটিয়ে গণতন্ত্রের নবতর অভিযাত্রায় সমৃদ্ধির ঐশ্বর্যে প্রদীপ্ত সূর্যোদয় ঘটে। নির্বাচনে স্বাধীনতাবিরোধী, যুদ্ধাপরাধী, ১৫ আগস্ট, জেলহত্যা ও ২১ আগস্টের খুনিদের এবং সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ ও সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে প্রত্যাখ্যান করে দেশবাসী। ২৫৯ আসনে জয় লাভ করে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ।২০১৮ সা‌লের ৩০ ডিসেম্বর অনু‌ষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংস‌দের নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর টানা তৃতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হি‌সে‌বে শপথ নেন শেখ হা‌সিনা। দিনটিকে ‘গণতন্ত্রের বিজয় দিবস’ হিসেবে পালন করার জন্য বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে আওয়ামী লীগ।দেশের সব জেলা/মহানগর, উপজেলা/থানাসহ সংগঠনের সকল শাখার উদ্যোগে ‘গণতন্ত্রের বিজয় দিবস’ উদযাপন উপলক্ষে বিজয় মিছিল, র‌্যালি, সমাবেশসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হবে।সোমবার (৩০ ডিসেম্বর) বিকেল ৩টায় রাজধানীর ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বিজয় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। সমাবেশে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত থাকবেন।আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সোমবার সারাদেশে বিজয় মিছিল, র‌্যালি, সমাবেশসহ বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে ‘গণতন্ত্রের বিজয় দিবস’ পালনের জন্য আওয়ামী লীগ ও সকল সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।