আজ ঐতিহাসিক নাজিরপুর যুদ্ধ দিবস

জাহাঙ্গীর আলম, নেত্রকোণা প্রতিনিধিঃ আজ ২৬ জুলাই ঐতিহাসিক নাজিরপুর যুদ্ধ দিবস ১৯৭১ সালের এ দিনে কলমাকান্দা উপজেলার নাজিরপুর নামক স্থানে পাক হানাদার বাহিনীর সাথে মুক্তিযোদ্ধাদের ভয়াবহ সম্মুখ যুদ্ধ সংঘটিত হয়।

যুদ্ধে সাত বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ হন। শহীদ মুক্তিযোদ্ধারা হলেন নেত্রকোনার আবদুল আজিজ ও মো. ফজলুল হক, ময়মনসিংহের মুক্তাগাছার মো. ইয়ার মামুদ, ভবতোষ চন্দ্র দাস, মো. নূরুজ্জামান, দ্বিজেন্দ্র চন্দ্র বিশ্বাস ও জামালপুরের মো. জামাল উদ্দিন। নাজিরপুরের অদূরে ভারত সীমান্তসংলগ্ন লেঙ্গুরা এলাকায় তাঁদের সমাহিত করা হয়।

নেত্রকোণা সহ বৃহত্তর ময়মনসিংহের মুক্তিযোদ্ধারা প্রতি বছর দিনটিকে ঐতিহাসিক নাজিরপুর যুদ্ধ দিবস হিসেবে পালন করে আসছেন। মুক্তিযুদ্ধের গৌরব গাঁথা সেই স্মৃতি ধরে রাখতে এবং নতুন প্রজন্মের সামনে মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত চিত্র তুলে ধরতে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নেত্রকোণা জেলা ও কলমাকান্দা উপজেলা ইউনিট কলমাকান্দা উপজেলা অাওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠন প্রতি বছর নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে এই দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করে আসছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সোহেল রানা জানান বৈশ্বিক করোনা মহামারীর কারণে এবছর সীমিত আকারে যথাযোগ্য মর্যাদায় শারীরিক দূরত্ব বজায় ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে এ দিবসটি পালন করা হবে। সকাল সাড়ে ১০টায় নাজিরপুর স্মৃতিসৌধ ও পরে লেঙ্গুরা ইউনিয়নের ফুলবাড়িয়াস্থ সাত শহীদের সমাধিস্থলে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হবে।

কলমাকান্দা দূর্গাপুরের মাননীয় সংসদ সদস্য মানু মজুমদার এমপি মহোদয়- সংগঠন ও ব্যাক্তিগত পক্ষ থেকে প্রতিবছরের ন্যায় এবছরও উক্ত দিবসের কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করার সদয় সম্মতি দিয়েছেন। শহীদদের সম্মান প্রদর্শন পূর্বক পুলিশের একটি চৌকস দল ও মুক্তিযোদ্ধাদের একটি চৌকস দল গার্ড অব অনার প্রদান করবেন এবং শহীদের আত্মার মাগফেরাত ও শান্তি কামনা করে বিশেষ দোয়া ও প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হবে।