আজ আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হচ্ছে ইজতেমা

আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে আজ শেষ হচ্ছে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। এরইমধ্যে টঙ্গীর তুরাগ তীরে জড়ো হয়েছেন লাখো মুসল্লি। আখেরি মোনাজাতের পর  মুসল্লিদের যাতায়াত নির্বিঘ্ন করতে যান চলাচল নিয়ন্ত্রণের পদক্ষেপ নিয়েছে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ। ভোর থেকে বন্ধ রাখা হয়েছে টঙ্গীমুখী সব পথ। এদিকে এই পর্বের ইজতেমায় অংশ নিতে এসে এ পর্যন্ত আট জন মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার ফজরের নামাজের পর ভারতের নিজামুদ্দিন মারকাজের মওলানা চেরাগ উদ্দিনের বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয় ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আনুষ্ঠানিকতা। এরপর শনিবার দ্বিতীয় দিনের বয়ান শুরু করেন ভারতের মাওলানা মোরসালীন। আজ আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এবছরের বিশ্ব ইজতেমা।

এরইমধ্যে টঙ্গীর তুরাগ তীরে উপস্থিত রয়েছেন কয়েক লাখ মুসল্লি। দ্বিতীয় পর্বে ৩১টি দেশের প্রায় দেড় হাজার বিদেশি নাগরিক ছাড়াও অংশ নিয়েছে ৬৪ জেলার ধর্মপ্রাণ মানুষ। ঈমান ও আখলাখের শিক্ষা গ্রহণ করে আল্লাহর নৈকট্য লাভের আশায় তাদের এই আগমন বলে জানান তারা।

ইজতেমার মুরব্বিরা জানান, আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে শনিবার থেকে মুসল্লিরা ইজতেমা ময়দানের আশপাশে অবস্থান নিয়েছেন। এছাড়া মোনাজাতে আরও বিপুল সংখ্যক মানুষ জড়ো হবেন বলেও আশা করা হচ্ছে। জোহরের ওয়াক্তের আগেই দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাত শেষ করার কথাও জানান ইজতেমার মুরব্বিরা।

এদিকে আখেরি মোনাজাতে অংশগ্রহণকারী মুসল্লিদের যাতায়াত নির্বিঘ্ন করতে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে বিশেষ ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা। এই অঞ্চলের পুলিশ কমিশনার জানান, ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের গাজীপুর চৌরাস্তায় এবং উত্তরবঙ্গ থেকে আসা গাড়িগুলো কোনাবাড়ি থেকে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। বন্ধ রাখা হয়েছে টঙ্গীমুখী সবপথ। বৃদ্ধ মুসল্লিদের যাতায়াতের জন্য শাটল বাসের ব্যবস্থা করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

৫৫তম বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বেও বার্ধক্যজনিক কারণসহ নানা কারণে ইজতেমায় অংশ নেওয়া আট জন মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে।