আখের মূল্য পরিশোধের দাবিতে নাটোর চিনি কলের সাবজোন অফিসে তালা

সাজেদুর রহমান, নাটোর প্রতিনিধিঃ ২০১৯-২০২০ আখ মাড়াই মৌসুমের বিক্রিকৃত আখের মূল্য পরিশোধের দাবিতে পূর্ববর্তী ঘোষণা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে নাটোর চিনি কলের অধিনে বাগাতিপাড়ার সাবজোনের আওতায় ৯’শ থেকে ১হাজার আখ চাষীর আখের মূল্য (বাকি প্রাপ্য টাকা) প্রায় ২ কোটি টাকা পরিশোধের দাবিতে সাবজোন অফিসে তালাবদ্ধ করেছেন ভুক্তভোগী কৃষকরা।

রোবিবার ৬ সেপ্টেম্বর সকালে উপজেলার নওশেরা সাবজোন অফিসের সামনে পাওনা টাকার দাবীতে বিক্ষোভ করেন তারা। পরে অফিসটিতে তালা ঝুলিয়ে দেন এবং আগামী তিনদিনের মধ্যে পাওনা টাকা পরিশোধ করতে না পারলে মহাব্যবস্থাপকের অফিস কক্ষ সহ নাটোর চিনি কলের সকল অফিস তালাবদ্ধ করার হুশিয়ারি দেন বিক্ষোভ কারীরা।

বিক্ষোভকারী আখ চাষীদের নেতৃত্বদানকারী আখ চাষী নেতা মোঃ আশরাফুল আলম খাঁন ডাবলু জানান, গত ২০১৯-২০২০ আখ মাড়াই মৌসুমে ২১ মার্চ ২০২০ পর্যন্ত কৃষক তাদের উৎপাদনকৃত আখ নাটোর চিনি কলের অধিনে বাগাতিপাড়ার সাবজোনের বিভিন্ন ৮ টি আখ ক্রয় কেন্দ্রে সরবরাহ করেন।

কিন্তু আখ মাড়াই মৌসুমের পাঁচ মাস অতিবাহিত হলেও চাষীদের সরবরাহকৃত আখের মূল্য প্রায় ২ কোটি টাকা পরিশোধ করেননি চিনি কল কর্তৃপক্ষ। এনিয়ে ইতিপূর্বে নাটোর চিনি কলের উর্ধতন কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ করলে নাটোর সুগার মিল ব্যবস্থাপক গত ১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে চাষীদের সকল টাকা পরিশোধের প্রতিশ্রুতি দিলেও সেই প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন না করায় আখ চাষীরা ক্ষুব্ধ হয়ে রবিবার সকালে নওশেরা সাবজোন অফিস তালা বদ্ধ করেন।

এবং বাগাতিপাড়া সাবজোন সহ নাটোর চিনি কলের অধীনে নলডাঙ্গা, বাসুদেবপুর, নাটোর, দত্ত পাড়া, আহম্মেদপুরের চাষীরাও ঐসকল সাবজোন অফিস তালাবদ্ধ করেছেন বলে জানান তিনি। এছাড়াও আগামী তিনদিনের মধ্যে টাকা পরিশোধ না করতে পারলে মহাব্যবস্থাপকের অফিস কক্ষ সহ নাটোর সুগার মিলে তালা বদ্ধ করারর হুমকি দেন তিনি সহ অন্যান্য আখ চাষী নেতারা।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, ভুক্তভোগী আখ চাষী নেতা আলাইদ্দীন, আব্দুল গনী, তিতুমীর বাদশা, আমির হোসেন প্রমুখ।