আখাউড়া প্রেসক্লাব সভাপতিসহ ৬ সাংবাদিককে হুমকিদাতাদের গ্রেফতারের দাবি বিভিন্ন সংগঠনের

জহিরুল ইসলাম সাগর, আখাউড়া প্রতিনিধিঃ আখাউড়া প্রেসক্লাব সভাপতিসহ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ছয় সাংবাদিককে হুমকি দেয়া হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ও ম্যাসেন্জারে। জেলার কসবা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রাশেদুল কাওছার ভূইয়া জীবন ও পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ছায়েদুর রহমান মানিকের পক্ষ নিয়ে এ হুমকি দেয়া হয়। তবে বৃহস্পতিবার ছায়েদুর রহমান মানিক আইডিগুলোর বিরোধিতা করে থানায় জিডি করেছে।

সাংবাদিকদের হুমকির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে আইডিগুলো সনাক্ত করে দোষীদের গ্রেফতারের দাবী জানিয়েছেন জাতীয় সাংবাদিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখা, আখাউড়া প্রেসক্লাব, আখাউড়া রিপোর্টার্স ইউনিটি, আখাউড়া টিভি জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন, এবং সামাজিক সংগঠনসহ বিভিন্ন মহল।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক সহায়তার তালিকায় অনিয়ম নিয়ে কসবার একাধিক জনপ্রতিনিধি ও এডিপি’র কাজ না করেই বিল উত্তোলনের অভিযোগে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ পরিবেশিত হয়। এরই জের ধরে ‘জীবন ভাইয়ের সৈনিক’, ‘মানিক চেয়ারম্যানের সৈনিক’ নামে দুইটি আইডিতে থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ছয়জন সাংবাদিক ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবের সদস্য সচিব দীপক চৌধুরী বাপ্পী, আখাউড়া প্রেস ক্লাবের সভাপতি মো. মানিক মিয়া, দেশ রূপান্তরের ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি মো. মনির হোসেন, সময় টিভির ব্যুরো চিফ উজ্জল চক্রবর্তী, এনটিভির নিজস্ব প্রতিবেদক শিহাব উদ্দিন বিপু, কালের কণ্ঠের ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রতিনিধি বিশ্বজিৎ পাল বাবুকে কসবায় পেলে হাত-পা কেটে রেখে দেয়া হবে বলে এসব আইডি থেকে হুমকি দেওয়া হয়।

কালের কন্ঠ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রতিনিধি বিশ্বজিৎ পাল বাবু জানায়, আমার বিভিন্ন পোস্টের কমেন্টস ও ম্যাসেঞ্জারেও এ হুমকি দেয়া হয়। তবে যাদের পক্ষে এ হুমকি দেয়া হয়েছে তাঁরা বলছেন, বিষয়টি উদ্দেশ্যমূলক ও জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে সাংবাদিকদের দূরত্ব সৃষ্টি করতেই ফেক আইডি দিয়ে এ ধরণের হুমকি দেয়া হয়েছে।