আইসিইউ না পেয়ে এছহাক ব্রাদাসের হাজী ইউনুছের মৃত্যু

মোঃরাশেদ, চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ  করোনা সন্দেহে হাসপাতাল গুলোতে রোগী ভর্তি করতে অনীহা। এক হাসপাতাল থেকে অন্য হাসপাতালে ছুটে যেতে হচ্ছে স্বজনদের। একটুখানি চিকিৎসা পাওয়ার আশা। শত অনুনয়েও ভর্তি করা হচ্ছে না।

কখনও ভর্তি করা গেলেও পাচ্ছে না যথাযথ চিকিৎসা। করোনা সন্দেহে আইসিইউ সাপোর্ট না পেয়ে রোববার রাত নয়টার দিকে মারা যান এছহাক ব্রাদার্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাজী মোহাম্মদ ইউনুছ। করোনা সন্দেহে নগরের কোন বেসরকারি হাসপাতাল আইসিইউ সাপোর্ট দিতে এগিয়ে আসেনি।

পরে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার জন্য এয়ার এম্বুলেন্স ভাড়া করা হয়। কিন্তু প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সেবার অভাবে এর আগেই মারা যান তিনি। সন্ধ্যায় অসুস্থতাবোধ করলে পরিবারের সদস্যরা মোহাম্মদ ইউনুসকে নিয়ে যান নগরের জিইসি মোড়স্থ মেডিকেল সেন্টারে।

ভর্তি করাতে চাইলেও তারা রোগী ভর্তি করেনি। দুই ঘন্টা ধরে চেষ্টা করা হয় ভর্তি করানোর জন্য। ব্যর্থ হলে রাত ৮টায় তাকে নেয়া হয় মেট্রোপলিটন হাসপাতালে। বার বার বলার পর, অনেক আকুতিতে সেখানে তাকে ভর্তি করা সম্ভব হয়।

কিন্তু তাৎক্ষণিক আইসিইউ সাপোর্ট না পাওয়ায় তার অবস্থার খারাপ হতে থাকে। তাকে অক্সিজেন সাপোর্টে রেখে নগরের আইসিইউ সম্বলিত সকল বেসরকারি হাসপাতালের দ্বারে দ্বারে আইসিইউ চাওয়া হয়। লাভ হয় না। সম্ভব না হলে চাওয়া হয় এইচডিও শয্যা। করোনা সন্দেহে কোন হাসপাতালই সাড়া দেয়নি।

শেষ পর্যন্ত আইসিইউ সার্পোট না পেয়ে রাত নয়টায় মৃত্যু হয় তার। গত ২৫ মার্চ ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থেকে সুস্থ হয়ে চট্টগ্রাম ফিরেন। এর আগে থেকে তিনি ডায়বেটিস, কিডনি এবং হাপানি জনিত সমস্যায় ভুগছিলেন।