আইইউবিতে স্প্রিং ২০২০ সেমিস্টারের ওরিয়েন্টেশন

ইন্ডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ (আইইউবি)’র স্প্রিং-২০২০ সেমিস্টারের নতুন শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে। জানুয়ারি ১৮, ২০২০ তারিখে রাজধানীর বসুন্ধরায় বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে এর আয়োজন করা হয়। আইইউবি’র মোট ৫টি অনুষদের অধীনে বিভিন্ন বিভাগে লেখাপড়ার সুযোগ পাবেন এসব শিক্ষার্থী। অনুষদগুলো হলো: স্কুল অব বিজনেস; স্কুল অব ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড কম্পিউটার সায়েন্স; স্কুল অব এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট; স্কুল অব লিবারেল আর্টস অ্যান্ড সোস্যাল সায়েন্সেস এবং স্কুল অব লাইফ সায়েন্সেস।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিজিএমইএ’র প্রেসিডেন্ট ড. রুবানা হক। তিনি বক্তৃতায়, নারীর উচ্চশিক্ষা ও ক্ষমতায়নের ওপর জোর দেন। বলেন, শিক্ষার ক্ষেত্রে নারীরা এগিয়ে যাচ্ছে। একজন উচ্চশিক্ষিত নারীই পারে রাজনীতি, অর্থনীতি, সংস্কৃতিসহ সব জায়গায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনের মাধ্যমে সমঅধিকার প্রতিষ্ঠা ও নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে লড়াই করতে। এসময় তিনি আরও বলেন, উচ্চশিক্ষায় নারীর অংশগ্রহণ বেড়েছে, নারীরা অনেকে পেশাজীবীও হচ্ছেন, তবে তা প্রয়োজনের তুলনায় যথেষ্ট নয়। জীবনে সফল হতে হলে নৈতিকতা এবং মানব জীবনের মূল্যবোধের ওপর বেশি গুরুতারোপ করেন ড. রুবানা হক।
স্বাগত বক্তব্যে আইইউবি’র ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক মিলান পাগন কাঙ্খিত জীবন গড়ার লক্ষ্যে আইইউবি’কে বেছে নেওয়ায় সকল শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকদের ধন্যবাদ জানান। পেশাগত জীবনে কখনো হাল ছেড়ে না দেওয়ার পাশাপাশি নিজেকে কাঙ্খিত লক্ষের যোগ্য করে গড়ে তোলারও পরামর্শ দেন তিনি। নবাগত শিক্ষার্থীদের উষ্ণ অভ্যর্থনা জানিয়ে আইইউবি’র দেওয়া সকল সুযোগ-সুবিধা যথাযথভাবে কাজে লাগিয়ে পেশাগত জীবনে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনের পাশাপাশি দায়িত্ববান ও ভালোমানুষ হিসেবে নিজেদের গড়ে তোলার জন্য নতুন শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানান অধ্যাপক মিলান পাগন।
অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থী এবং তাদের অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে বক্তৃতা করেন আইইউবি’র বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান জনাব এ মতিন চৌধুরী। তিনি শিক্ষার্থীদের নীতি-নৈতিকতার ওপর বেশি গুরুত্বারোপ করেন। এসময় তিনি আশা প্রকাশ করেন, নবাগত শিক্ষার্থীরা তাদের কাজের মধ্য দিয়ে দৃঢ় মানসিকতা ও অনুপ্রেরণার বহিঃপ্রকাশ ঘটাবে যেন এর মধ্য দিয়ে দেশ পরিচালনায় আগামীর নেতৃত্ব তৈরি হতে পারে। দেশ-বিদেশ থেকে জ্ঞান অর্জনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা জাতির মঙ্গল বয়ে আনবে বলে তাদের কাছ থেকে এমটাই প্রত্যাশা করেন জনাব মতিন চৌধুরী।
এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন আইইউবি’র ট্রেজারার খন্দকার মো: ইফতেখার হায়দার, রেজিস্ট্রার মো. আনোয়ারুল ইসলাম, স্কুল অব বিজনেস’র ডিন অধ্যাপক মোহাম্মদ আনোয়ারুল করিম; স্কুল অব ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড কম্পিউটার সায়েন্স’র ডিন অধ্যাপক মোহাম্মদ আনোয়ার, স্কুল অব এনভায়রমেন্টাল সায়েন্স অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট’র ডিন ড. আব্দুল খালেক, স্কুল অব লিবারেল আর্টস অ্যান্ড সোস্যাল সায়েন্সেস’র ভারপ্রাপ্ত ডিন অধ্যাপক ইমতিয়াজ এ. হুসেইন এবং স্কুল অব লাইফ সায়েন্সেস’র ডিন (ইনচার্জ) অধ্যাপক শাহ এম ফারুক।
আইইউবি’র অ্যাডমিশন্স অ্যান্ড ফিনান্সিয়াল এইড অফিসের আয়োজনে ওরিয়েন্টশন অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন এর উপ-পরিচালক লিমা চৌধুরী। অনুষ্ঠানে আইইউবি মিউসিক এবং ডান্স ক্লাবের মনোমুগ্ধকর পরিবেশনা উপভোগ করেন সকলে। এছাড়া ভর্তি পরীক্ষায় শীর্ষস্থান অধিকারী ৬ শিক্ষার্থীর হাতের পুরস্কার তুলে দেয়া হয়। আইইউবিতে অধ্যয়নকালে পরবর্তীতে তারা বৃত্তি পাবেন।
পরে শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগ, গবেষণাগার, লাইব্রেরি ঘুরিয়ে দেখানো হয় এবং নিয়মকানুন সমন্ধে অবহিত করা হয়। কনসার্টের মধ্য দিয়ে শেষ হয় নবাগত শিক্ষার্থীদের স্বাগত জানাতে দিনব্যাপী এ আয়োজন। ওরিয়েন্টেশন কর্মসূচিতে নবাগত শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা ছাড়াও আইইউবি’র শিক্ষক ও কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।