অল্প বৃষ্টিতে ফতুল্লার বিভিন্ন এলাকায় হাটু পানি

সফিকুল ইসলাম জনি, ফতুল্লা প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জ ফতুল্লার বিসিক ও কুতুবআইল শিল্পাঞ্চলসহ বিভিন্ন এলাকা বৃষ্টিতে হাটু পানি জমেছে। এ সকল এলাকায় একটু বৃষ্টি হলেই রাস্তা ও বাসাবাড়িতে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ে। অপরিকল্পিত সড়ক ও বাড়ি নির্মাণ এবং পানি নিষ্কাষণের জন্য কোন প্রকার ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকাই হচ্ছে পানি জমাটের মূল কারণ।

বৃহষ্পতিবার বিকেলে ফতুল্লার মাসদাইর, ইসদাইর, সস্তাপুর, কায়েমপুর, লালপুর, কোতালেরবাগসহ বিভিন্ন এলাকা ঘুরে জানাযায়, অনেক এলাকাতেই পানি নিস্কাশনের ড্রেন নেই। আবার অনেক এলাকাতে ড্রেন থাকলেও তা ময়লা আবর্জনায় বন্দ হয়ে রয়েছে। এছাড়া অনেক এলাকায় খাল গুলো পলিথিন ও বাসা বাড়ির আবর্জনার স্তপ জমে থাকায় পানি নিস্কাশন হচ্ছেনা। ফলে ফতুল্লার নিম্মাঞ্চলে বৃস্টির পানি জমতে শুরু করেছে।

এলাকাবাসী জানান, ফতুল্লা শিল্পঞ্চল কেন্দ্রীক হওয়ায় এখানে প্রায় কয়েক লাখ লোকের বসবাস। এদের মধ্যে বেশির ভাগই পোশাক শ্রমিক। সারাদিন কর্মস্থলে কাজ শেষে বাসায় ফিরতেই নারী-পুরুষ সকলকে নোংরা ময়লা পানির বিড়ম্বনায় পড়তে হয়েছে। ঘটছে রাস্তায় নানা ধরণের দূর্ঘটনা। একটু বৃষ্টি হলেই এলাকায় প্রবেশ পথে হাটু সমানেরও বেশি পানি জমে যায়।

কয়েকজন বাড়ির মালিক জানান, বৃষ্টি হলেই পানিতে তলিয়ে যায় রাস্তাঘাট। এরপর বৃষ্টির পানি রাস্তা থেকে গড়িয়ে বাসা-বাড়িতে প্রবেশ করে।

ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা জানান, করোনা ভাইরাসের কারনে ব্যবসায় মন্দা ভাব চলছে। তারমধ্যে আবার রাস্তায় পানি থাকায় বেচা-বিক্রি নেই বললেই চলে। এ অবস্থায় ব্যবসায়ীরা মারাত্মক ক্ষতির মুখে পড়ার আশংকা করছে।

এবিষয়ে নারায়নগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) নাহিদা বারিক বলেন, খোজ নিয়ে দেখছি কোন কোন এলাকায় পানি জমেছে। ওইসব এলাকার ইউপি চেয়ারম্যান, মেম্বারদের সঙ্গে আলোচনা করে দ্রুত এ সমস্যার সমাধান করা হবে।