অবরোধ থেকে মুক্তি পেলেন শাহাদাত-বক্কর-সুফিয়ান

মোঃরাশেদ, চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ বিবাহিত ছাত্রদল নেতাদের হাতে অবরুদ্ধ শাহাদাত-বক্কর-সুফিয়ান
নগর কমিটিতে রাখার দাবিতে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর, সিনিয়র সহ-সভাপতি আবু সুফিয়ান এবং মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি গাজী সিরাজ উল্লাহকে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়।

বুধবার (১৫ জুলাই) দুপুরে ১ টার দিকে নগরীর নাসিমন ভবন দলীয় কার্যালয়ে প্রায় এক ঘন্টা তাদের অবরুদ্ধ করে রাখে বিবাহিত ছাত্রদল নেতারা। রোগীদের জন্য ফ্রি অক্সিজেন ও মেডিসিন সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন শেষে বের হওয়ার সময় এ ঘটনা ঘটে।

প্রায় এক ঘন্টাব্যাপী দলীয় কার্যালয়ের গেইটের সামনে অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর, সিনিয়র সহ-সভাপতি আবু সুফিয়ান, যুগ্ম সম্পাদক এসকান্দর মির্জা, ইয়াছিন চৌধুরী লিটন এবং চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি গাজী সিরাজ উল্লাহসহ বিএনপির নেতারা।

পরে বিবাহিত-অবিবাহিতদের সমন্বয়ে কমিটি করা হবে এমন আশ্বাস দিয়ে অবরুদ্ধ থেকে মুক্ত হন বিএনপির নেতারা।

গত কমিটি হয়েছে ৭ বছর হচ্ছে ১১ সদস্যের। তারপর দীর্ঘদিন কমিটি হয়নি। আমরা বিবাহিতরা একটু স্বীকৃতি চাই। আমরা ১০ দিনের জন্য হলেও কমিটিতে স্থান পেতে চাই।
দক্ষিণ ও উত্তর জেলার কমিটিতে বিবাহিতদের রাখা হচ্ছে। নগরে কেন রাখা হবেনা? তিনি আরো বলেন, ছাত্রদলের কমিটিতে ছাত্রনেতাদের ত্যাগ, মামলা, হামলা, কারানির্যাতন, রাজপথের অভিজ্ঞতা, সাংগঠনিক দক্ষতা সর্বোপরি শিক্ষাগত যোগ্যতাকে অগ্রাধিকার দেওয়া হোক। রাজপথের ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়ন করে নগর ছাত্রদলকে সুন্দর কমিটি উপহার দেওয়ার দাবি জানাই।

এদিকে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর, সিনিয়র সহ-সভাপতি আবু সুফিয়ানসহ নেতৃবৃন্দ আমাদের আশ্বাস দিয়েছেন ছাত্রদলের নেতাদের। বিবাহিত-অবাবিহতদের সমন্বয়ে কমিটি গঠন করার জন্য কেন্দ্রীয় ছাত্রদল ও কেন্দ্রীয় বিএনপিসহ ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে নগর বিএনপির সিনিয়র নেতারা আহ্বান জানাবেন বলে জানা গেছে।