অনুদান বন্ধের পর এবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে বেরিয়ে যাওয়ার ইঙ্গিত আমেরিকার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে ব্যর্থ আখ্যা দিয়ে অনুদান বন্ধ করে দেওয়ার পর এবার এই সংস্থা থেকে বেরিয়ে যাওয়ার ইঙ্গিত দিল আমেরিকা।

সম্প্রতি একটি টিভি অনুষ্ঠানে এমনই ইঙ্গিত দিলেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। তার মতে, যুক্তরাষ্ট্রের আর কখনোই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থায় অর্থ দান করা উচিত হবে না।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অর্ধ-বার্ষিক বাজেট প্রায় পাঁচ বিলিয়ন ডলার। মহামারীর মতো জরুরি পরিস্থিতিতে এর পরিমাণ আরও বাড়ে। গত বছর তাদের চারশ’ মিলিয়ন ডলার দিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র, যা সংস্থাটির মোট বাজেটের প্রায় ১৫ শতাংশ।

সঞ্চালকের এক প্রশ্নের জবাবে মাইক পম্পেও বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র আর কখনোই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থায় মার্কিন করদাতাদের অর্থ যাওয়ার দায় না-ও নিতে পারে। সেক্ষেত্রে আমাদের আরও বড় পরিবর্তন দরকার হতে পারে।’

এদিন করোনা মহামারী নিয়ে চীনেরও কড়া সমালোচনা করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘শুধু উহানের ল্যাবেই নয়, এই ভাইরাস সম্পর্কে জানতে যেখানে যেখানে দরকার সেখানে যেতে, এর প্রজাতি সম্পর্কে জানতে আজও মার্কিন বিজ্ঞানীদের চীনে যাওয়ার অনুমতি দেয়নি দেশটির সরকার।’

এসময় চীনের কাছ থেকে তথ্য বের করতে ব্যর্থতার জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকেই দায়ী করেন পম্পেও। আর এর জন্যই তাদের জন্য অর্থ জোগান বন্ধ করে দেওয়া ‘পুরোপুরি সঠিক’ বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এদিকে ডব্লিউএইচও প্রধান পদত্যাগ করলে যুক্তরাষ্ট্র সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করবে কিনা জানতে চেয়েছিলেন অনুষ্ঠানটির সঞ্চালক। তবে সরাসরি এর জবাব দেননি মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। বলেছেন, ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা নিয়ে আমরা কী করব, বিষয়টি আরও ভালোভাবে দেখতে হবে।’

সূত্র: ডেইলি মেইল